🕓 সংবাদ শিরোনাম

সাংবাদিক রোজিনাকে হয়রানি ও হেনস্থার প্রতিবাদে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের মানববন্ধনসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতনের প্রতিবাদে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের মানববন্ধনঝালকাঠিতে জমি নিয়ে বিরোধে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা,আটক-২মাত্র ২০ ঘন্টায় ১০ লক্ষ দর্শক পেল“ তাকে ভালোবাসা বলে” নাটকটিবিয়ের কথা বলে প্রেমিকাকে তুলে নিয়ে রাতভর ধর্ষণভারতে করোনায় একদিনে মারা গেলেন ৫০ চিকিৎসকদেশে বিশেষ অভিযান চালাবে ইন্টারপোলসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নেওয়া হলো আদালতেতুমুল সমালোচনার মুখে ‘জেরুজালেম প্রেয়ার টিম’পেজ সরিয়ে নিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষইসরাইলকে সমর্থন দিয়েছে বিশ্বের ২৫টির মতো দেশ!

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

মেইন গেটে তালা দিয়ে ভিতরে অবাধে চলছে কোচিং বাণিজ্য, অতঃপর...!


❏ বুধবার, মে ১, ২০১৯ রংপুর

কামরুল হাসান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ে শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশনাকে অমান্য করে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে শিক্ষাগুরুরাই অবাধে কোচিং চালাচ্ছে। ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক দুলাল উদ্দিন টিউটোরিয়াল ক্লাসের নামে কোচিং চালাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও এভাবে অসংখ্য কোচিং সেন্টার অবাধে চলছে কোচিং বাণিজ্য।

মঙ্গলবার বিকেলে ঠাকুরগাঁও শহরের বেশ কিছু এলাকায় ঘুরে দেখা যায়, শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশনা অমান্য করে শহরের অসংখ্য কোচিং সেন্টার দিনে ও রাতের বেলায় কোচিং সেন্টারের মেইন গেটে বাইরের দিকে তালা দিয়ে ভিতরের অবাধে কোচিং করাচ্ছেন উচ্চ মাধ্যমিক থেকে শুরু করে বিভিন্ন শ্রেণীর ছাত্র-ছাত্রীদের।

১ এপ্রিল থেকে ৬ মে পর্যন্ত সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা: দীপু মনি। আসন্ন এইচ এস সি ও সমমান পরীক্ষা উপলক্ষে কোচিং সেন্টার বন্ধ থাকবে বলে জানান তিনি। কিন্তু এই নির্দেশনাকে তোয়াক্কা করছেন না ঠাকুরগাঁওয়ে কোচিং সেন্টারের কর্তৃপক্ষ ও শিক্ষকরা।

দেখা যায়, শহরের ঘোষপাড়ায় অবস্থিত রেনেসাঁ একাডেমি কেয়ারের মেইন গেটে তালা দিয়ে ভিতরের কোচিং করাচ্ছিলেন ঠাকুরগাঁও সরকারি কলেজের ইংলিশ বিভাগের সহকারি অধ্যাপক দুলাল উদ্দিন। তাৎক্ষনিভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুনকে বিষয়টি জানানো হলে তার নির্দেশনায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বর্ণি শিখা আশা ঘটনাস্থলে আসেন। এসময় অধ্যাপক দুলাল উদ্দিন ভুল শিকার করে বলেন, আমার এটা করা ঠিক হয়নি।

এদিকে ঠাকুরগাঁওয়ের ইকো কলেজের প্রভাষক সূর্যমহন তার বাসায় উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্র-ছাত্রীদেরকে পড়ানোর সময় তিনিও ভুল শিকার করেন। এভাবেই ঠাকুরগাঁওয়ের কিছু অসাধু শিক্ষক সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে অবাধে কোচিং বাণিজ্য চালাচ্ছে।

অন্যদিকে একই সময়ে ভ্রাম্যমান আদালত হাজীপাড়ায় শাহিন এডুকেয়ার কচিং সেন্টারে বন্ধ করে দেয়। সে সময় দুইজন সরকারি শিক্ষক ওই কোচিং সেন্টার থেকে পালিয়ে যায় বলে জানা যায় ছাত্র ছাত্রীদের কাছে।