সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঘূর্ণিঝড় ফণী: ছাত্রলীগকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

❏ বৃহস্পতিবার, মে ২, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- অতিপ্রবল প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’ বাংলাদেশে আঘাত হানলে ক্ষতি কমিয়ে আনতে উপকূলীয় এলাকায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদেরও প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৃহস্পতিবার (২ মে) সচিবালয়ে বিভিন্ন দুর্যোগে গণমাধ্যমের করণীয় বিষয়ে বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের (বিসিজেএফ) নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় একথা জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

তিনি বলেন, একটা মানুষেরও প্রাণহানী ঘটতে দিতে চায় না সরকার। ফণীর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় জেলায় ৪-৫ ফুটের বেশি উঁচু জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত এবং ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় আসন্ন দুর্যোগ মোকাবিলায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও ছাত্রলীগকে ক্ষতি কমিয়ে আনার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

‘আমাদের দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুতির পাশাপাশি এ নির্দেশনা বাড়তি শক্তি হিসেবে কাজ করবে।’

সরকারের প্রস্তুতি নিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা এটি মোকাবেলার জন্য মন্ত্রণালয়, অধিদফতর ও জেলা-উপজেলা কর্মকর্তাদের ছুটি বাতিল করেছি। ২৪ ঘণ্টা কন্ট্রোল রুমে থাকার জন্য সবাইকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। ৫৬ হাজার সিপিবি ভলান্টিয়ারকে মাঠে নামানো হয়েছে, তারা মাইকিং করছে। মহাবিপদ সংকেত দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে তারা জনগণকে আশ্রয়কেন্দ্রে নেয়ার কাজ শুরু করবে।

তিনি আরও বলেন, ‘চার হাজার ৭১টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। সোলার কানেকশন ও সুপেয় পানির জন্য ৩০টি ট্রাক সরবরাহ করা হয়েছে। প্রত্যেক জেলায় দুইশ টন করে চাল ও দুই হাজার প্যাকেট শুকনা খাবার এবং জেলা প্রশাসকের কাছে নগদ পাঁচ লাখ টাকা দেয়া হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আর্মড ফোর্সেস ডিভিশন, ফায়ার সার্ভিস ও রেড ক্রিসেন্টের পাশাপাশি উপকূলীয় এলাকায় নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ড প্রস্তুত রয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্রগুলো এতোটাই প্রটেক্টেড যে এখানে আসলে প্রাণহানি হয় না।’