• আজ বৃহস্পতিবার। ২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। সন্ধ্যা ৬:১৭

ঘূর্ণিঝড় ‘ফণী’র ঝুঁকি থেকে বাঁচতে জুমার নামাজের পর বিশেষ দোয়ার আহ্বান

⏱ | বৃহস্পতিবার, মে ২, ২০১৯ 📁 আলোচিত বাংলাদেশ
enam

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ বৃহস্পতিবার দুপুরে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে ৭০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণী। ঘণ্টায় ২৭ কিলোমিটার গতিতে অগ্রসর হচ্ছে। বর্তমানে ঝড়ের গতিবেগ ১৮০ কিলোমিটার। ফণীর সম্ভাব্য ঝুঁকি থেকে বাঁচতে শুক্রবার জুমার নামাজের পর বিশেষ দোয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সরকারের যে প্রস্তুতি তাতে প্রাণহানির আশঙ্কা নেই। চার হাজার ৭১টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত আছে। ১৯ জেলায় পাঁচ লাখ করে টাকা, ২০০ টন চাল এবং দুই হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার পাঠানো হয়েছে।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, খবর পেয়েছি- ফণী উড়িষ্যা উপকূলে আঘাত হেনেছে। এর পর যদি পশ্চিমবঙ্গে আঘাত হানে, তা হলে দুর্বল হয়ে যাবে। এতে বাংলাদেশের ক্ষতির সম্ভাবনা কমে যাবে। যদি উত্তরে সরে যায়, তা হলে বাংলাদেশের ক্ষতি বাড়তে পারে।

আবহাওয়া অধিদফতরের পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ফণী বৃহস্পাতিবার সকাল ৯টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৬৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯১৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ৯২৫ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

ধীরে এগিয়ে এলেও ফণী বেশ শক্তিশালী হয়ে গেছে। এখন তার গতি বেড়ে গেছে। এ কারণে বাংলাদেশের পায়রা ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে সাত নম্বর বিপদসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।