🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ বুধবার, ২৯ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ১২ মে, ২০২১ ৷

ওড়িশায় ১৮০ কিলোমিটার বেগে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় ফণী

❏ বৃহস্পতিবার, মে ২, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তরজাইতক ডেস্ক- ভারতের আবহাওয়া অফিস আগামীকাল শুক্রবার সকালে আঘাত হানার কথা জানালেও আজই আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ফণী। এর প্রভাবে উপকূলীয় রাজ্য ওড়িশায় অত্যন্ত ভারী ৩০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে। বৃষ্টিপাত এলাকায় বাতাসের গতি ঘণ্টায় ১৭০ থেকে ১৮০ কিলোমিটার বেগে বইছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, ঝড় ও বৃষ্টির কারণে বিপাকে পড়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রাণ বাঁচাতে নিরাপদ স্থানের সন্ধানে বাড়ি-ঘর ছাড়ছেন তারা। উপকূলীয় এলাকায় কাঁচা বাড়ির বাসিন্দাদের ইতোমধ্যে আশ্রয় শিবিরে সরিয়ে আনার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে।

এদিকে ভারতীয় দৈনিক ইন্ডিয়া ট্যুডে এক প্রতিবেদনে বলছে, ওড়িশা ছাড়াও দেশটির অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনমে ৯০ থেকে ১১০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে তীব্র বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

দেশটির অপর সংবাদমাধ্যম নিউজ১৮ বলছে, ঘূর্ণিঝড় ফণীর কারণে তীব্র হাওয়া এবং বৃষ্টির জেরে অন্ধ্রপ্রদেশের রাস্তার ধারে বৈদ্যুতিক পোল ও গাছ-পালা উপড়ে পড়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে স্থানীয় প্রশাসন।

এদিকে ভারতীয় গণমাধ্যম ওয়ান ইন্ডিয়া দুপুরে জানিয়েছে, অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ফণী পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগরের ওপর অবস্থান করে উত্তর-উত্তর-পূর্ব দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। এদিন দুপুর সাড়ে এগারোটার সময় যার এগিয়ে যাওয়ার বেগ ছিল ঘণ্টায় ১৬ কিমি। সেই সময় কলকাতা থেকে তার দূরত্ব ছিল ৭৪০ কিমি এবং পুরী থেকে দূরত্ব ছিল ৩৬০ কিমি।

শুক্রবার বিকেলের মধ্যে যা ওড়িশার গোপালপুর এবং চাঁদবালির মধ্যবর্তী জায়গায় আছড়ে পড়বে বলে অনুমান আবহাওয়া দফতরের। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গে যা শুক্রবার মধ্যরাত কিংবা শনিবার ভোরে আছড়ে পড়বে বলে অনুমান আবহাওয়া দফতরের।

এদিকে বৃহস্পতিবার ( ২ মে) দুপুরে বাংলাদেশের আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক সামছুদ্দিন আহমদ বলেছেন, ফণীর গতি বেড়ে এটি আরও শক্তিশালী হয়েছে। শুক্রবার বিকেল কিংবা সন্ধ্যা নাগাদ ফণী সরাসরি কিংবা ভারত হয়ে বাংলাদেশে আঘাত হানতে পারে।

সামছুদ্দিন আহমদ বলেন,  এটি যদি সরাসরি বাংলাদেশে আঘাত হানে তবে তা রূপ নেবে সুপার সাইক্লোনে। আমরা বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে দেখেছি ফণী ধীরে ধীরে এগিয়ে আসছে। কিন্তু দুপুরের পূর্বাভাসে দেখা যাচ্ছে ফণী বেশ শক্তিশালী হয়ে গেছে। এখন তার গতি বেড়েছে।

এই আবহাওয়াবিদ বলেন, আগের পূর্বাভাসে বলা হয়েছিল ৪ মের পর এটি আঘাত হানতে পারে। কিন্তু এখন মনে হচ্ছে তার আগেই আগামীকাল শুক্রবার বিকেল কিংবা সন্ধ্যা নাগাদ এটি সরাসরি কিংবা ভারত হয়ে বাংলাদেশে আঘাত হানবে। তবে যদি এটি বাংলাদেশে সরাসরি আঘাত হানে তাহলে সুপার সাইক্লোনের মত রূপ নিতে পারে।