• আজ ২৫শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রংপুরে চোর ধরতে ফাঁদ: বিদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ গেল একই পরিবারের তিন জনের

❏ শুক্রবার, মে ৩, ২০১৯ দেশের খবর, রংপুর

মেজবাহুল হিমেল, রংপুর প্রতিনিধি- চুরি ঠেকাতে বাড়ির মালিকের পেতে রাখা ফাঁদে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে এক শিশুসহ একই পরিবারের তিন জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। নিহতদের সবাই নারী। তাদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শুক্রবার (৩ মে) বেলা সোয়া ১টায় রংপুর মহানগরীর চারতলা মোড় বনানীপাড়ায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় বাড়ির মালিক সৈয়দ আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নগরীর বনানীপাড়ায় সৈয়দ আলীর দোতলা বাড়িতে ভাড়া থাকতেন চাকরিজীবী রুবেল ইসলামের পরিবার। ওই বাড়িতে বেশ কয়েকবার চুরি হওয়ায় বাড়ির মালিক সৈয়দ আলী বাড়ির ছাদে জিআই তারে ফাঁদ তৈরি করে রাখে। সেখানে শুক্রবার দুপুরে ভাড়াটিয়া তানিয়া আকতার (২৫) তার শিশুকন্যা তাজনিয়াকে (৭) নিয়ে কাপড় শুকানোর জন্য ছাদের উপরে গিয়ে ফাঁদ পাতানো জিআই তারে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এসময় তাদের চিৎকারে ছুটে গিয়ে তানিয়ার মা বৃদ্ধা তাজমহলও (৬০) সেখানে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা যান।

এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী বাড়ির মালিক সৈয়দ আলীকে বাড়িতে আটকে রেখে পুরো বাড়ি ঘিরে রাখে। পরে রংপুর ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম গুরুতর অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করায়

এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে অভিযুক্ত বাড়ির মালিকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন স্থানীয়রা। রংপুর সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনোয়ারা সুলতানা মলি বলেন, ‘চোর ধরতে এভাবে মানুষ মারার ফাঁদ পেতে রাখা অন্যায়। আজ চুরি ঠেকানোর জন্য বাড়ির মালিকের তৈরি করা ফাঁদে ভাড়াটিয়াদের জীবন দিতে হলো। এটি দুঃখজনক ঘটনা। আমি চাই সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হোক।’

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারি পুলিশ কমিশনার (কোতয়ালী জোন) জমির উদ্দিন বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রমেক হাসপাতালের মর্গে নেয়া হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বাড়ির মালিক সৈয়দ আলীকে থানায় নেয়া হয়েছে। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’