সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত টাঙ্গাইলের ২ জনের বাড়ীতে আহাজারি

❏ শনিবার, মে ৪, ২০১৯ ঢাকা
tangail

মোল্লা তোফাজ্জল,টাঙ্গাইল প্রতিনিধি- সৌদি আরবের সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ১০ বাংলাদেশীর মধ্যে ২ জনের বাড়ি টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে।

জেলার নিহত ওই দুই ব্যক্তির বাড়ী কালিহাতী উপজেলার ঝগড়মান এবং কস্তুুরিপাড়া গ্রামে। এ দুর্ঘটনায় নিহতের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম আর করুণ আহাজারি। এ মৃত্যুতে অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে নিহতের পরিবারের ভবিষ্যৎ। একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়ে দিশেহারা পরিবার গুলো। এছাড়া অকাল মৃত্যুতে এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

এ ঘটনায় নিহতরা হলেন, টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা সদরের ঝগড়মান গ্রামের হাফিজ উদ্দিনের ছেলে বাহাদুর (৩৫) এবং কস্তুুরিপাড়ার শামছুল হকের ছেলে মনির হোসেন (২০)। নিহতদের পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

নিহত বাহাদুর ছিলেন অসহায়-দুঃস্থ প্রতিবন্ধি পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। প্রতিবন্ধী স্ত্রী, একমাত্র প্রতিবন্ধী কণ্যা সন্তান, মা অসুস্থ বাবা ও এক বাক-প্রতিবন্ধী বোন নিয়ে ছিলো বাহাদুরের সংসার। এছাড়াও তার ছিল বিবাহিতা অপর তিন বোন।

বাহাদুরের প্রতিবন্ধী স্ত্রী রাশেদা বলেন, ‘আমাগোরে লাশটা আইন্যা দেন, আমগোরে সংসার এহন কেমনে চলবো, ঋণ কিবায় সুদাবো।’

নিহত মনির হোসেনের মা মমতাজ বলেন, আমার পোলার লাশটা আইন্ন্যা দেন।
এক মাস আগে মনিরের বাবা ইরাক প্রবাসী শামছুল হকের বাম হাতের চারটি আঙ্গুল কাজ করার সময় মেশিনে কাটা পড়ে। বর্তমানে সে ইরাকে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় নিহতের আত্মীয়-স্বজন এবং পরিবারের সদস্যদের করুণ আহাজারিতে আকাশ বাতাস ভারি হয়ে উঠেছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার ২ মে সৌদির রাজধানী রিয়াদ থেকে ১৮০ কিলোমিটার দূরের সাকরা শহরে এক মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয় ১০ বাংলাদেশী।