সংবাদ শিরোনাম

১৯৬৭ সালের সীমান্ত অনুযায়ী স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র চায় বাংলাদেশ | রোহিঙ্গা গণহত্যা মামলা লড়তে গাম্বিয়াকে ৫ লাখ ডলার দিয়েছে বাংলাদেশ | মির্জাপুরে মাটি উত্তোলনের দায়ে ব্যবসায়ীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা | ঝালকাঠিতে হত্যা মামলায় স্কুল শিক্ষিকাসহ গ্রেপ্তার ২ | সিলেট জাপায় শতাধিক নেতাকর্মীর যোগদান | পঞ্চগড় পৌরসভায় আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন জাকিয়া খাতুন | মানিকগঞ্জ পৌর নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেলেন সাবেক মেয়র রমজান আলী | চিনিকল বন্ধের ঘোষণা বাতিলসহ ৪ দফা দাবিতে শ্রমিকদের মানববন্ধন | বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের বিরোধিতাকারীদের শাস্তির দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ে মানববন্ধন | একটু জোরে ধাক্কা দিলে সরকার ক্ষমতা থেকে পড়ে যাবে: ডা. জাফরুল্লাহ |

  • আজ ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

এবারের ঈদযাত্রা আনন্দদায়ক ছিল : ওবায়দুল কাদের

৬:৫৯ অপরাহ্ন | বুধবার, আগস্ট ১৪, ২০১৯ জাতীয়

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: এবারের ঈদে ঘরমুখো মানুষের যাতায়াত ছিল বেশ আনন্দের বললেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। দু-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া মানুষ স্বস্তির সঙ্গেই বাড়ি গিয়ে ঈদ করতে পেরেছে।

ওবায়দুল কাদের আজ বুধবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে ঈদ-পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। ঈদযাত্রা ও সমসাময়িক বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, সারা দেশের মানুষ বেশ স্বস্তির সঙ্গে ঈদ ও কোরবানি করেছেন। শুধু উত্তরবঙ্গের একটি সড়কে ঘরমুখো মানুষের জন্য কিছুটা ভোগান্তি হয়েছে। এটার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।

সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, ‘ঈদের সময় ৬ থেকে ১৩ আগস্ট পর্যন্ত দুর্ঘটনায় ৪৬ জন মানুষ মারা গেছেন। এর আগে অন্যান্য সময় ঈদের প্রাক্কালে প্রাণহানির সংখ্যা আরো বেশি ছিল। আমরা বর্তমানে এ সংখ্যা কমিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছি। ভবিষ্যতে আরো কমে আসবে। সড়ক দুর্ঘটনায় একজন মানুষেরও মৃত্যু হোক, আমরা তা চাই না।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, আবহাওয়ার কারণে ফেরি চলাচল কিছুটা বিঘ্নিত হয়েছে। এতে দক্ষিণাঞ্চলের যাত্রীদের যাতায়াতেও কিছুটা সমস্যা হয়েছে। এখানে কারো হাত ছিল না। রাস্তা খারাপের কারণে কোথাও কোনো যানজটের সৃষ্টি হয়নি। ঈদে ঘরমুখো যাত্রীসাধারণের অতিরিক্ত চাহিদা পূরণের জন্য বিআরটিসি অতিরিক্ত এক হাজার ১৪৩টি বাসের মাধ্যমে তাদের সেবা দিয়েছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের অভিযোগ খুব একটি বেশি পাওয়া যায়নি। যেখানেই অভিযোগ পাওয়া গেছে, সেখানেই মোবাইল কোর্ট অভিযান চালিয়ে ব্যবস্থা নিয়েছে। অতিরিক্ত ভাড়া আদায়সহ বিভিন্ন অভিযোগে ৩৮১টি মামলা হয়েছে।