সংবাদ শিরোনাম
চাঁদপুরে জনবল সংকটে পুলিশ: জেলেদের হামলা অব্যাহত | কয়েদির পোশাকে ভাইরাল মিন্নির ছবি, জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা | মুসলিমদের অনুভূতি আমি বুঝতে পেরেছি : ম্যাঁক্রো | এবার রাশিয়াকে আংশিক মুসলিম রাষ্ট্র বললেন পুতিনের মুখপাত্র | চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পরদিনই বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা | ‘মাদরাসা শিক্ষা নিয়ে অপপ্রচারের সুযোগ নেই’- তথ্য প্রতিমন্ত্রী | ইয়েমেনের যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রীকে হত্যাকারী ঘাতক নিহত | বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসায় উপমহাদেশজুড়ে তোলপাড় হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী | মত প্রকাশের স্বাধীনতায়ও সীমাবদ্ধতা আছে: জাস্টিন ট্রুডো | ফেসবুকে ধর্ম অবমাননার কারণে এক সপ্তাহে ৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার |
  • আজ ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

২ দফা দাবিতে চুয়াডাঙ্গায় পরিবহন ধর্মঘটের হুমকি

২:৩১ পূর্বাহ্ন | রবিবার, সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯ খুলনা
Chudanga

শামসুজ্জোহা পলাশ,  চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি :  চুয়াডাঙ্গার প্রধান পাঁচটি সড়ক থেকে অবৈধ সকল যানবহন বন্ধসহ দুই দফা দাবি জানিয়েছে চুয়াডাঙ্গা জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দাবি পূরণে ব্যর্থ হলে ১৬ সেক্টম্বর থেকে লাগাতার পরিবহন ধর্মঘটের হুমকি দেওয়া হয়।

শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সংগঠনের নিজস্ব কার্যালয়ে জরুরি এক সংবাদ সন্মেলন করে এ দাবি জানানো হয়। সংবাদ সন্মেলনে মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের নেতৃবৃন্দ দাবি পূরণের জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে আট দিনের সময়সীমা বেঁধে দেন।

সংবাদ সন্মেলনে লিখিত বক্তব্যে চুয়াডাঙ্গা জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি হাবিবুর রহমান লাভলু বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে জেলার প্রধান পাঁচটি সড়ক থেকে নসিমন, করিমন, আলমসাধু, ইজিবাইক ও থ্রি হুইলারসহ সকল অবৈধ যানবাহন বন্ধের দাবি জানিয়ে আসছি। এছাড়া আঞ্চলিক মহাসড়ক থেকে এসব যানবহন উচ্ছেদে উচ্চ আদালতের নির্দেশনাও রয়েছে। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসন এ ব্যাপারে কোনো কার্যকর প্রদক্ষেপ গ্রহণ করছেন না।

তিনি দাবি করেন, জেলার প্রধান সড়কগুলোতে এসব যানবহন চলাচল করার কারণে পরিবহন শিল্প আজ ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। এ কারণে জেলার প্রায় দেড় হাজার পরিবহন ব্যবসায়ী ও ছয় হাজার শ্রমিক চরম নাজুক পরিস্থিতির মধ্যে জীবন যাপন করছেন।

সংবাদ সন্মেলনে বাস মিনিবাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক এ নাসির জোয়ার্দ্দার বলেন, গত ৯ বছরে চুয়াডাঙ্গা জেলাতে অবৈধ এসব যানবহনে দুর্ঘটনায় পাঁচ শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছে দুই হাজার মানুষ। হতাহতদের পরিবারগুলো মানবতর জীবনযাপন করছেন। কিন্তু এরপরও ঘুম ভাঙছে না স্থানীয় প্রশাসনের।

জেলা সড়ক পরিবহন মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রিপন মন্ডল জানান, আমাদের দুই দফার মধ্যে রয়েছে জেলার প্রধান পাঁচটি সড়ক থেকে সকল প্রকার অবৈধ যানবাহন বন্ধ ও মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা সড়কে সরাসরি বাস চলাচলের ব্যবস্থা নিশ্চিত করা। আগামী ১৫ সেক্টম্বরের মধ্যে দাবি দুটি পূরণ না হলে ১৬ সেক্টম্বর থেকে জেলার সকল রুটে লাগাতার পরিবহন ধর্মঘট পালন করা হবে।

satkhira ১২০০ পিস ইয়াবাসহ সাতক্ষীরায় গ্রেফতার ৫

শুক্রবার, অক্টোবর ২৩, ২০২০