পাবনায় আ.লীগ নেতাকে কাফনের কাপড় পাঠিয়ে হত্যার হুমকী

৮:৪৪ অপরাহ্ণ | বুধবার, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ রাজশাহী

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহরে এ,এইচ, এম কামরুজ্জামান খোকন নামের এক আওয়ামীলীগ নেতাকে চিঠি মারফত কাফনের কাপড় পাঠিয়ে হত্যার হুমকী দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ঐ আ.লীগ নেতা জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে চাটমোহর থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেছেন।

গত ৬ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) কুরিয়ার সার্ভিসের চাটমোহর অফিস থেকে চিঠিটি পাওয়ার পরে ৮ সেপ্টেম্বর (রবিবার) সন্ধায় চাটমোহর থানায় ডায়রীটি করেন তিনি।

আ’লীগ নেতা কামরুজ্জামান খোকন উপজেলার নিমাইচড়া ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি ও একই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে কামরুল ইসলাম নামের এক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে এসেছে পুলিশ।

আ.লীগ নেতা কামরুজ্জামান খোকন জানান, গত প্রায় ৬ মাস পূর্বে উপজেলা নির্বাচনের প্রচারণা শেষে নিমাইচড়া আমার এলাকা থেকে চাটমোহর বাসভবনে রাতে ফেরার পথে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা আমাকে ও আমার এক সফর সঙ্গীকে হত্যার উদ্দেশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে মৃত ভেবে তারা ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয়রা আমাকে রাস্তার পাশ থেকে গুরুতর আহবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পরে কিছুদিন ধরে সুস্থ হয়েছি মাত্র।

এ ঘটনায় জড়িত ৬/৭ জনের নাম উল্লেখ পূর্বক চাটমোহর থানায় একটি মামলাও করেছি। মামলাটি পাবনা কোর্টে বিচারাধীন অবস্থায় আছে। বর্তমানে সেই আসামীরা জামিনে জেল থেকে বের হয়ে এসে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আবার সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এই ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে আমাকে হত্যার হুমকী দিয়ে কাফনের কাপড় পাঠিয়ে চিঠি দিয়েছে। বর্তমানে আমি চরম নিরাপত্তা হীনতায় ভূগছি।

ঘটনার বিষয়ে চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেখ নাসীর উদ্দিন জানান, কামরুজ্জামান খোকন চেয়ারম্যানকে উড়ো চিঠিতে হুমকী পাওয়ার পরে থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেছেন। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে এক যুবককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।