সংবাদ শিরোনাম
  • আজ ৬ই কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ভিকারুন নিসায় যোগ দিলেন নতুন অধ্যক্ষ ফওজিয়া

৯:৩০ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৯ স্পট লাইট

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: রাজধানীর খ্যাতনামা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভিকারুন নিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে অধ্যক্ষ পদে যোগ দিয়েছেন ফওজিয়া রেজওয়ান। ১৯৫২ সালে প্রতিষ্ঠিত এ প্রতিষ্ঠানে বিসিএস (সাধারণ শিক্ষা) ক্যাডার থেকে প্রথমবারের প্রেষণে এ নিয়োগ পান তিনি।

এর আগে তিনি রাজধানীর সবুজবাগ সরকারি মহাবিদ্যালয়ে অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করছিলেন। ভিকারুন নিসায় তিনি ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফেরদৌসি বেগমের স্থলাভিষিক্ত হলেন।

এদিকে অধ্যক্ষ নিয়োগের বিষয়ে মঙ্গলবার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। তবে নিয়োগ সংক্রান্ত ওই প্রজ্ঞাপনে কোনো স্থগিতাদেশ না দেওয়ায় অধ্যক্ষ হিসেবে ফওজিয়ার কাজে যোগ দিতে কোনো বাধা নেই বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

স্কুলটির শিক্ষকরা জানান, মঙ্গলবার দুপুরে ফওজিয়া রেজওয়ান অধ্যক্ষ পদে যোগ দেন। বেইলে রোডে বিদ্যালয়ের মূল শাখায় যোগদানের পর তাকে দায়িত্ব বুঝিয়ে দেন সদ্য সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফেরদৌসি বেগম। এ সময় স্কুলের ধানমন্ডি, আজিমপুর ও বসুন্ধরা শাখার শাখা-প্রধানরাও উপস্থিত ছিলেন। যোগদানের পর অধ্যক্ষ ফওজিয়াকে প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ শিক্ষকরা ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

নতুন অধ্যক্ষ এদিন সমকালকে বলেন, ভিকারুন নিসায় কাজে যোগ দিয়েছি। শিক্ষকদের সঙ্গে পরিচিত হচ্ছি। বিকেলে শিক্ষকদের নিয়ে একটি দীর্ঘ সভাও করেছি।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬৭ বছরের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো অধ্যক্ষ নিয়োগ দেয় সরকার। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে বরাবরই এ বিদ্যাপীঠে অধ্যক্ষ নিয়োগ দিয়ে এসেছে পরিচালনা পর্ষদ।

বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারের কর্মকর্তা ফওজিয়ার নিয়োগের বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের জারি করা প্রজ্ঞাপন চ্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে রীট আবেদন করেন ভিকারুন নিসা পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সদস্য সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুস আলী আকন্দ। আদালত গত সোমবার এক আদেশে গতকাল বেলা ১১টা পর্যন্ত তাকে যোগদান না করতে আদেশ দিয়েছিলেন।

দেশের অন্যতম খ্যাতনামা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হলেও ভিকারুন নিসায় দীর্ঘ প্রায় এক দশক ধরে কোনো পূর্ণকালীন অধ্যক্ষ নেই। গত এপ্রিলে এ প্রতিষ্ঠানে অধ্যক্ষ নিয়োগের চেষ্টা করেছিল তৎকালীন পরিচালনা কমিটি। তবে নানা অনিয়মের অভিযোগ ওঠায় তদন্ত করে গত ৪ জুলাই ওই নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

নিয়োগ নিয়ে রুল : অধ্যক্ষ পদে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফওজিয়া রেজওয়ানের নিয়োগের বিষয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। রুলে তাকে নিয়োগ দিয়ে জারি করা প্রজ্ঞাপন কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভুত হবে না, জানতে চাওয়া হয়েছে।

বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলম সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের অবকাশকালীন বেঞ্চ মঙ্গলবার এ আদেশ দেন। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে শিক্ষাসচিব, ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান, ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ, ঢাকার জেলা প্রশাসকসহ ১১ জন বিবাদীকে এই রুলের জবাব দিতে হবে।

এদিকে অধ্যক্ষ পদে ফওজিয়ার দায়িত্ব পালনের বিষয়ে হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ না থাকায় তিনি দায়িত্ব পালন করতে পারবেন বলে জানিয়েছেন রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আদেশের পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ফওজিয়ার নিয়োগ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন নিয়ে হাইকোর্ট রুল জারি করেছেন। কিন্ত প্রজ্ঞাপনের কার্যকারিতা স্থগিত করা হয়নি। এর ফলে ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ হিসেবে তার দায়িত্ব পালনে আইনগত কোনো বাধা নেই।