রংপুর-৩ উপ নির্বাচন: জিতলে দেখা নাই, ভোট দিয়্যা কী হইবে

◷ ১১:২৩ পূর্বাহ্ন ৷ শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯ রংপুর
Rangpur Elecation

সাইফুল ইসলাম মুকুল,রংপুর প্রতিনিধি:  রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচনের প্রচারণায় তেমন সাড়া নেই ভোটারদের মাঝে। প্রার্থীরাও খুব বেশি দৌড়ঝাঁপ করছেন না। যেন ঢিলেঢালা প্রচারণাতেই পার হচ্ছে দিন।

এরই মধ্যে নির্বাচনের দিন ঘনিয়ে আসছে। রংপুর নগর-সদর কোথাও নেই প্রার্থীদের ব্যানার পোস্টার নেই চোখে পরার মত। লাঙ্গল, ধানের শীষ আর মোটরগাড়ি প্রতীকের তিন প্রার্থীর কিছু পোস্টার চোখে পড়লেও অন্য তিনজনের পোস্টার নেই। ভোটের আগে উৎসবহীন অবস্থা দেখে ক্ষুদ্ধ ভোটাররা।

কথা হলো রিকশা চালক জব্বার আলীর সাথে, তার বয়স পঞ্চাশ পেরিয়েছে। রংপুর সদরের হরিদেবপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা তিনি। প্রতিদিন সকালে রিকশা নিয়ে রংপুর মহানগরে চলে আসেন। সারাদিন ঘাম ঝরানো শ্রমের উপার্জন নিয়ে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরেন। জব্বার আলী বলেন, প্রতিবারই তো নাঙ্গলোত ভোট দিচি। এবার ভাবি চিন্তি না হয় ভোট দেমো। হামার গরিবের ভোট দিয়্যা কি হইবে? জিতলে তো দেখা নাই। খালি ভোটের সমায় ওমার দেখা মেলে।’

জব্বার আলীর মতো রংপুরের অসংখ্য ভোটার রয়েছেন, যারা ভোট নিয়ে ভাবেন না। কারণ তাদের কাছে ভোট উৎসবের রং বদলে গেছে। ফিকে হয়ে গেছে নির্বাচনের আমেজ। শুধু প্রার্থী আর নেতাকর্মীদের মধ্যেই এখন নির্বাচন নিয়ে ভাবনা। সাধারণ ভোটাররা নিরব থাকলেও সচেতন মহলে চলছে রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচন নিয়ে নানা রকম বিশ্লেষণ।

রংপুর মহানগরীর শাপলা চত্বর এলাকার বাসিন্দা এম এ মজিদ। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বাসা থেকে তার বাসার দূরত্ব প্রায় এক কিলোমিটার। এতো কাছাকাছি থেকে ভোটের উত্তাপ বা উৎসব কোনোটাই অনুভব করতে পারছেন না তিনি।

পঞ্চান্ন বছর বয়সী এ ভোটার বলেন, এবার তো এরশাদ নেই। তার ছেলে সাদ এরশাদ আর তার ভাতিজা আসিফ শাহরিয়ার নির্বাচন করছেন। তারা দুইজন একই পরিবারের হলেও তাদের প্রতীক ভিন্ন। আসিফ শাহরিয়ার স্থানীয় ও সাবেক এমপি হিসেবে পরিচিত।

এদিকে সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) রংপুর মহানগর সভাপতি ফখরুল আনাম বেঞ্জু বলেন, বিভিন্ন কারণে রাজনৈতিক নেতাদের প্রতি মানুষের আস্থা কমে আসছে। ভোটারদের প্রত্যাশা থাকে, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা তাদের এলাকাতে থাকুক। যেন প্রয়োজনে সাধারণ মানুষ সংসদ সদস্যদের কাছে যেতে পারেন। কিন্তু এ প্রত্যাশার জায়গা এখনো কেউই পূরণ করতে পারেননি।’

উল্লেখ্য, রংপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক রাষ্ট্রপতি ও জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য এ আসনে আগামী ৫ অক্টোবর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।