গাজীপুরে র‌্যাবের অভিযানে ধর্ষক গ্রেপ্তার

◷ ১০:২৪ অপরাহ্ন ৷ শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৯ ঢাকা
Gazipur

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর: গাজীপুরের দক্ষিণ সালনা এলাকায় জামাকাপড় কিনে দেয়ার কথা বলে ১২ বছরের এক কিশোরী ধর্ষনকারী মোশাররফ হোসেন(৩৫)কে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১। মোশারফ দক্ষিন সালনা এলাকার মৃত আঃ মালেকের ছেলে।

শনিবার (২৮ সেপ্টে.) আনুমানিক ১টা ৩০মিনিটে দক্ষিণ সালনা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়,দক্ষিণ সালনা এলাকায় ভিকটিমকে জামাকাপড় কিনে দেয়ার কথা বলে ফুসলিয়ে নিয়ে ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে হত্যার ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করে মোশারফ। এ বিষয়ে ভিকটিম তার পরিবারের অন্যদের কাছে প্রকাশ করতে গেলে ধর্ষণকারী তাকে বিভিন্ন ভাবে ভয়-ভিতি প্রদর্শন করে এবং তার জীবন নাশের হুমকি দেয়। পরবর্তীতে বিষয়টি ভুক্তভোগী তার পরিবারের সাথে আলোচনা করেন। এবং উক্ত বিষয়ে আইনগত সাহায্য কামনা করে ভিকটিম র‌্যাব-১, স্পেশালাইজড্ কোম্পানীর কোম্পানী কমান্ডার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

বিষয়েটিকে গুরুত্ব দিয়ে অভিযানে নামে র‌্যাব-১। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কোম্পানীর কোম্পানী কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন, (জি), বিএন এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সহ জিএমপি, গাজীপুর সদর থানাধীন দক্ষিণ সালনা এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ধর্ষক মোশারফকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মোশারফ ধর্ষণের কথা স্বীকার করে বলেন, গতকাল শুক্রবার(২৭সেপ্টেম্বর) বিকাল অনুমান ৩টায় ভিকটিমকে জামা-কাপড় কিনে দেয়ার কথা বলে বিভিন্ন স্থানে গুরিয়ে রাত আনুমানিক ৭টার দিকে সদর থানাধীন পশ্চিম চতর বাজার স্কুল গেইট এলাকায় নিয়ে যান। সেখানে ময়না দ্বীপ  ঝোপের ভিতর নিয়ে রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ভিকটিমের ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক একাধিকবার ধর্ষণ করে।  এছাড়াও মোশারফ ইতোপূর্বে একই কায়দায় বহু মেয়েকে ধর্ষণ করছে বলে র‌্যাবের কাছে স্বীকার করেছে।

ধৃত আসামীকে থানায় হস্তান্তর ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলেও র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।