সংবাদ শিরোনাম

বিয়ে পাগল স্বামীর গোপনাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে দিলেন স্ত্রী!সিরাজগঞ্জে আলাদা সড়ক দুর্ঘটনায় ব্যবসায়ী ও শিশু নিহতটিকা সবাইকে দিয়ে নিই, তারপর আমি নেবো: প্রধানমন্ত্রীসুনামগঞ্জে সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ২ মাসের অন্তঃসত্ত্বা, ১ জন আটকসংঘর্ষ, গোলাগুলি অতঃপর দুই লাশে শেষ হলো চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনরংপুরে ইটভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ১৯ লাখ টাকা জরিমানানির্বাচন বর্জন করলেন ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী জান্নাতুল ইসলামদেশের প্রথম করোনা টিকা নিলেন নার্স রুনুমুন্সিগঞ্জে শিশু ধর্ষণের দায়ে যুবকের যাবজ্জীবনদেশে করোনা টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

  • আজ ১৪ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

মেয়ের উত্যক্তের প্রতিবাদে বাবা খুন: ছাত্রলীগ নেতাসহ ৪ আসামীর রিমান্ড

◷ ২:০৯ অপরাহ্ন ৷ রবিবার, অক্টোবর ৬, ২০১৯ রাজশাহী
47812235986542

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: কলেজ ছাত্রী মেয়েকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বাবা আব্দুর রউফ আবু সাঈদ (৪৫) হত্যার ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ৪ আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত ।

আজ রবিবার দুপুরে সিরাজগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে রিমান্ড শুনানি শেষে আদালতের বিচারক আহসান হাবীব তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত বৃহস্পতিবার মামলার তদন্তকারী কর্মকতা গৌতম চন্দ্র মালি আসমীদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন ।

রিমান্ড প্রাপ্তরা হলেন, সিরাজগঞ্জের কাজীপুর পৌর ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, নাসির উদ্দিন, পারভেজ ইসলাম নয়ন ও মিরাজুল ইসলাম বিদ্যুৎ।

গত বুধবার বিকেলে কলেজ পড়ুয়া মেয়ের উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় কাজিপুর উপজেলার গান্ধাইল ইউনিয়নের দুবলাই গ্রামের কোরবান আলী মন্ডলের ছেলে আবু সাঈদকে পিটিয়ে হত্যা করে পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম ও তার সহযোগীরা।

এঘটনায় নিহতের ভাই আবু তালেব বাদী হয়ে পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আমিনুল ইসলাম সহ ৮ জনকে আসামী করে কাজীপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় পুলিশ আমিনুল, নাছির, পারভেজ ইসলাম নয়ন ও মিরাজুল ইসলাম বিদ্যুৎকে গ্রেফতার করে পুলিশ ।

কাজীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ.কে.এম.লুৎফর রহমান জানান, নিহতের মেয়ে সোনিয়া খাতুন সিরাজগঞ্জ সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। উচ্চ মাধ্যমিক পড়ার সময় কাজিপুর পৌর ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা সদরের আলমপুর গ্রামের আমিনুল ইসলাম মেয়েটির গৃহশিক্ষক ছিলেন। পূর্বে তাদের মধ্যে কিছুটা সম্পর্ক থাকলেও অনার্স ভর্তির পর সম্পর্কের অবনতি হয়। পরবর্তী সময়ে ওই গৃহ শিক্ষক প্রায় মেয়েটিকে কলেজ যাবার পথে উত্যক্ত করতো বলে জানা যায়। বিষয়টি নিয়ে এর আগেই তাকে বেশ ক’বার সতর্ক করেন মেয়েটির স্বজনরা।

গত বুধবার দুপুরে মেয়েটি কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে আমিনুল ও তার কজন ছাত্র পথ আগলে উত্যক্ত করার চেষ্টা করে। খবর পেয়ে মেয়েটির বাবা আবু সাঈদ ঘটনাস্থলে গিয়ে হৈচৈ ও প্রতিবাদ করেন। এ সময় আমিনুলেল দলবল আবু সাঈদকে বেধড়ক মারপীট করেন। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তির সন্ধায় সে মারা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।