সংবাদ শিরোনাম

শাবিতে সুমন হত্যা: ছাত্রলীগের ২৮ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে চার্জশিটচুয়াডাঙ্গায় টাকা আত্মসাত মামলায় ইউপি চেয়ারম্যানের দু’বছরের জেল, ১০ লাখ টাকা অর্থদন্ডভোটারের দেখা নেই; কেন্দ্রের বাইরে দলীয় নেতাকর্মীর জটলাচট্টগ্রামে ভোট শুরু দুই ঘন্টার মাথায় দুই খুনঈশ্বরগঞ্জে মেয়র প্রার্থীসহ আ’লীগের তিন নেতা বহিস্কারকক্সবাজারে হোটেল জোনে চিকিৎসাসেবার আড়ালে জমজমাট ‘মাদক ব্যবসা’!এজেন্টদের মারধর, দুই প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষবিএনপির পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না : ডা. শাহাদাতভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিলেন কমলা হ্যারিসভিক্ষুক কমিটির সভাপতি কাউন্সিলর প্রার্থী!

  • আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

জড়িতদের সবোর্চ্চ শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ ঢাবিতে

◷ ২:২১ অপরাহ্ন ৷ বৃহস্পতিবার, অক্টোবর ১০, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ
uuyuu

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক: আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের সবোর্চ্চ শাস্তির দাবি করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, বিভিন্ন ছাত্র ও সামাজিক সংগঠন।

বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সকাল থেকেই দফায় দফায় বিক্ষোভ সমাবেশে চলছে ক্যাপাসে। বিক্ষোভ মিছিল করেছে ছাত্রলীগও। কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে অংশ নিতে ছোট ছোট মিছিল নিয়ে মধুর ক্যান্টিনে আসতে থাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল এবং ঢাকার সব কলেজ ও অন্যান্য শাখার নেতাকর্মীরা। বুয়েটেও চললে আন্দোলন।

ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের স্লোগানে স্লোগানে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে পুরো ক্যাম্পাস। পরে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এ সময় হত্যাকাণ্ডে জড়িত সব আসামিদের আইনের আওতায় এনে বিচারের দাবি জানান তারা।

এদিকে আজই বুয়েটের শাখা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক উপ-সম্পাদক আমিত সাহাকে আটক করেছে পুলিশ।

বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের যে ২০১১ নম্বর কক্ষে আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়; সেই কক্ষটি অমিত সাহার। তার বিরুদ্ধে আবরারকে হত্যার অভিযোগ থাকলেও মামলায় তাকে আসামি না করায় এবং আটক না হওয়ায় সমালোচনা চলছিল।

জানা গেছে, ২০১১ নম্বর কক্ষটি অমিত সাহার। ঘটনার সময় তার নেতৃত্বে ছাত্রলীগের কর্মীরা আবরারকে বেদম মারধর করেন। পরে তিনিসহ অন্যরা বেরিয়ে যান। ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাসের জেরে আবরারকে রোববার রাতে ডেকে নিয়ে যান বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এরপর তাকে শের-ই-বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে কয়েক ঘণ্টা ধরে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

সময়ের কণ্ঠস্বর/ফয়সাল