নাঈমের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ

১০:২৮ অপরাহ্ণ | রবিবার, নভেম্বর ১০, ২০১৯ খেলা
naim

স্পোর্টস আপডেট ডেস্কঃ ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচে জয়ের জন্য বাংলাদেশের দরকার ১৭৫ রান। এমন সমীকরণের ম্যাচে বাংলাদেশের ব্যাটিং বিপর্যয়। শুরুতেই সাজঘরের পথ ধরেন মারকুটে দুই ব্যাটসম্যান লিটন দাস আর সৌম্য সরকার।

১২ রানে ২ উইকেট হারানোর ধাক্কা বাংলাদেশ কাটিয়ে উঠছে মোহাম্মদ নাঈম ও মোহাম্মদ মিঠুনের পঞ্চাশ ছাড়ানো জুটিতে। এরই মধ্যে ৩৪ বলে ক্যারিয়ারের প্রথম ফিফটি করেছেন নাঈম। ৭ চার ও ১ ছয়ে পঞ্চাশ ছোঁন আগের দুই ম্যাচে ২৬ ও ৩৬ রান করা এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।

এর আগে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ নির্ধারণী খেলায় টসে হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শ্রেয়াস আয়ার ও লোকেশ রাহুলের ফিফটিতে নির্ধারিত ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৪ রান সংগ্রহ করেছে স্বাগতিক ভারত।

দুই ওপেনারকে দ্রুত ফিরিয়ে দারুণ শুরু করেছিল বাংলাদেশ। গত ম্যাচে ভারতের জয়ের নায়ক রোহিত শর্মাকে বোল্ড করে ফেরান শফিউল ইসলাম। এরপর শিখর ধাওয়ান এবং লোকেশ রাহুলের জুটি অস্বস্তি বাড়ানোর আগেই আবারো আঘাত হানেন শফিউল। ১৬ বলে ১৯ রান করা ধাওয়ানকে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের তালুবন্দ্বী করান।

প্রথম ইনিংসে টাইগারদের স্বস্তি এতটুকু পর্যন্তই। এরপর লোকেশ রাহুলের সঙ্গে জুটি গড়েন শ্রেয়াশ আয়ার। সময়োপযোগী ব্যাটিংয়ে ৩৫ বলে ৫২ রান করে আল আমিন হোসেনের শিকার হন রাহুল। দলকে শক্তিশালী জায়গায় রেখে রাহুল ফিরে গেলেও শ্রেয়াশ আয়ার তখনো বিস্ফোরক। ৬ রানে রিশভ পান্থকে সৌম্য সরকার ফেরালেও তা খুব একটা স্বস্তি ফেরাতে পারেন বাংলাদেশ শিবিরে। তবে ৩২ বলে ৬২ রান করা শ্রেয়াসকে তুলে নিয়ে কিছুটা শ্বাঃস নেয়ার সুযোগ করে দেন সৌম্যই।

তারপরে স্বাগতিকদের রানের গতি কিছুটা কমলেও শেষ দিকে মানিশ পান্ডের ঝড়ে বাংলাদেশের সামনে বড় লক্ষ্যই দাঁড় করায় তারা।

বল হাতে সবচেয়ে সফল সৌম্য সরকার ৪ ওভারে ২৯ রান দিয়ে তুলে নেন ২টি উইকেট। সফিউল ইসলাম ২ উইকেট তুলে নিলেও নিজের চার ওভারের কোটায় খরচ করেন ৩২ রান। ৪ ওভারে ২২ রান দিয়ে ১টি উইকেট তুলে নেন আল আমিন। মোস্তাফিজ কোনো উইকেট নিতে পারেননি তবে রান খরচা করেছেন হাতখুলে।

বাংলাদেশের একাদশ: লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ নাঈম, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, মোহাম্মদ মিথুন, আফিফ হোসেন, আমিনুল ইসলাম, শফিউল ইসলাম, মোস্তাফিজুর রহমান এবং আল আমিন হোসেন।

ভারতের একাদশ: রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, মনীষ পান্ডে, ঋষভ পান্ত, শিভাম দুবে, ওয়াশিংটন সুন্দর, যুজবেন্দ্র চাহাল, দীপক চাহার এবং খলিল আহমেদ।

Loading...