🕓 সংবাদ শিরোনাম

চুয়াডাঙ্গায় ৬ বছ‌রের শিশুকে ধর্ষণ, অভিযুক্ত যুবক গ্রেফতারলাথি দেওয়া সেই শিক্ষক ছেলের আইনানুগ বিচার চান বাবামানিকগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় চেয়ারম্যান গ্রেফতারহামলা ঠেকাতে প্রশাসন ব্যর্থ নাকি গাফিলতি, প্রশ্ন ইনুরগোপালগঞ্জে পিকআপ ভ্যান ও নসিমনের মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ২লিটারে ৭ টাকা বাড়ল সয়াবিন তেলের দামযুবলীগ চেয়ারম্যানের নম্বর ক্লোন করে প্রতারণা, মূলহোতাসহ গ্রেফতার ২ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রীর বিকৃত ছবি শেয়ার করায় সাংবাদিক গ্রেপ্তারহিন্দু ভাই-বোনদের ভয় নাই, পাশি আছি: ওবায়দুল কাদেরসহিংসতায় দায়ীদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ

  • আজ মঙ্গলবার, ৩ কার্তিক, ১৪২৮ ৷ ১৯ অক্টোবর, ২০২১ ৷

মাদরাসা থেকে জেডিসি পরীক্ষা দিচ্ছে হিন্দু ধর্মের নয়ন!

noyon
❏ বুধবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৯ রংপুর

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলায় চলমান জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বী এক শিক্ষার্থী। এই শিক্ষার্থীর নাম নয়ন। সে উপজেলার টেপ্রিগঞ্জ ইউনিয়নের প্রামাণিক পাড়া এলাকার রতন রায়ের ছেলে। একজন হিন্দু ধর্মাবলম্বীর জেডিসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে।

পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার স্থানীয় শেখ বাধা রেজিয়া দাখিল মাদ্রাসা থেকে জেডিসিতে অংশ নিয়েছে সে। ইতিমধ্যে নয়ন কোরআন মাজিদ ও আরবিসহ কয়েকটি বিষয়ে ভালো পরীক্ষাও দিয়েছে বলে জানিয়েছে তার শিক্ষকরা।

জানা গেছে, দেবীগঞ্জ উপজেলার টেপ্রিগঞ্জ ইউনিয়নের প্রামাণিক পাড়ার রতন রায়ের ছেলে নয়ন রায়। ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে জানার প্রচণ্ড আগ্রহ থেকেই সে মাদ্রাসায় অষ্টম শ্রেণিতে ভর্তি হয়। আর এ মাদ্রাসা থেকেই চলমান জেডিসি পরীক্ষা দিচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীর এ শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে নয়নের বাবা রতন রায় জানান, ছোটবেলা থেকেই ইসলাম সম্পর্কে জানার প্রবল আগ্রহ থেকেই আমার ছেলে মাদ্রাসায় ভর্তি হয়েছে। আর তার মাদ্রাসা শিক্ষা গ্রহণের ইচ্ছাতে আমাদের পক্ষ থেকে কোনো বাঁধা নেই। নয়ন জানান, তার এমন আগ্রহে বা মাদ্রাসায় ভর্তি হওয়ার বিষয়ে পরিবারের পক্ষ থেকে কখনও কোনো অভিযোগ বা বাঁধা আসেনি। কেউ এর বিরোধিতাও করেনি।

নয়ন আরও বলে, স্কুলে সপ্তম শ্রেণীতে পড়ার সময় মাদ্রাসার কিছু ছাত্রদের সঙ্গে প্রাইভেট পড়তে গিয়ে তাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব ও সখ্য বাড়ে। এ সময় মাদ্রাসার ছাত্রদের চলাফেরা, আচার-আচরণ ও নিয়মানুবর্তিতাই তাকে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে জানার ব্যাপারে প্রভাবিত করে। আর তখনই সেসব মাদ্রাসাছাত্রদের সঙ্গে পরামর্শ করে স্থানীয় শেখ বাধা রেজিয়া দাখিল মাদ্রাসায় ভর্তি হয় সে।

মাদ্রাসা সূত্রে জানা গেছে, নয়ন রায় যে হিন্দু তা তাদের জানাই ছিল না। কারণ সে টুপি-পাঞ্জাবি পরা ছবি দিয়েই পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন করেছে। আর নয়ন তার পরিচয় গোপন রেখে মাদ্রাসায় ভর্তি হয়। তাছাড়া মাদ্রাসায় দেয়া তথ্যে সে কোথাও তার ধর্মীয় পরিচয় ব্যবহার করেনি। সেখানে রায় উপাধি না লেখায় সবাই তাকে মুসলমানই ভেবেছে। কারণ নয়ন ও রতন অনেক মুসলিমদেরও নাম হয়ে থাকে।

এ বিষয়ে নয়ন জানায়, হিন্দু পরিচয় পেলে যদি শিক্ষকরা তাকে মাদ্রাসায় ভর্তি হতে সুযোগ না দেন, তাই পরিচয় গোপন রেখেছিল সে। নয়ন আরও জানায়, মাদ্রাসায় অষ্টম শ্রেণীতে ভর্তি হওয়ার পর আরবি বিষয় একটু কঠিন লাগতো। কিন্তু আলাদাভাবে প্রাইভেট পড়ে আরবি বিষয় আয়ত্ব করে সে। ভবিষ্যতে মাদ্রাসা থেকেই উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করতে চায় নয়ন।

ইসলাম ধর্মকে জানার এত আগ্রহ কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে নয়ন জানায়, ‘আমি সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত স্কুলে পড়েছি। সপ্তম শ্রেণিতে পড়ার সময় মাদ্রাসার সহপাঠীদের সাথে প্রাইভেট পড়তাম। তখন তাদের চালচলন, পড়ালেখা এবং ধর্মীয় বিষয়গুলো দেখে ইসলাম ধর্মের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যায়। তখন তাদের সাথে পরামর্শ করে মাদ্রাসায় ভর্তি হই। আর আমি মাদ্রাসা থেকেই উচ্চ শিক্ষা অর্জন করতে চাই।’মাদ্রাসায় পড়লেতো আরবী জানা আবশ্যক এমন প্রশ্নের উত্তরে সে জানায়, ‘আমি আলাদা ভাবে প্রাইভেট পড়ে আরবী বিষয় মোটামুটি আয়ত্ব করেছি।’

এবিষয়ে দেবীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সলিমুল্লাহ বলেন, ‘এরকম কোন তথ্য আমি পাইনি। তাই এখন কিছু বলতে পারছি না।’

আপনার জেলার সর্বশেষ সংবাদ জানুন