সংবাদ শিরোনাম

বাসার দরজা ভেঙে তারেক শামসুর রেহমানের মরদেহ উদ্ধারকারওয়ান বাজারে সৌদি প্রবাসীদের বিক্ষোভ-সড়ক অবরোধচট্টগ্রামের বাঁশখালীতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ, গুলিতে ৪ শ্রমিকের মৃত্যুগাছে মোটরসাইকেলে ধাক্কা, ২ ক‌লেজ ছা‌ত্রের মৃত্যুহেফাজতিরা ধর্মকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় আসতে চায়: মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রীওবায়দুল কাদেরের বাড়িতে ককটেল হামলাশাহজাদপুরে থানা পুলিশের অভিযানে ইউপি সদস্যসহ ৯ জুয়াড়ি আটকখালেদা জিয়ার রোগ মুক্তি কামনায় ফরিদপুরে দোয়াওবায়দুল কাদেরকে কোম্পানীগঞ্জে ঢুকতে না দেওয়ার ঘোষণা কাদের মির্জারকরোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন এমপি ফারুক চৌধুরীর মা

  • আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মণিরামপুরে চতুর্থ শ্রেণির প্রতিবন্ধী ছাত্রীকে ধর্ষণ করলো শিক্ষক

১১:৪৮ পূর্বাহ্ন | বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৪, ২০১৯ খুলনা, দেশের খবর

মহসিন মিলন, বেনাপোল প্রতিনিধি- যশোরের মণিরামপুরে চতুর্থ শ্রেণির প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে এক স্কুল শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ।

খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার ওই বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী (১২) মণিরামপুর উপজেলার পাঁচাকড়ি গ্রামে বেড়াতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়। এ ঘটনায় তার মা থানায় মামলা করার পর পুলিশ স্কুল শিক্ষককে আটক করে আদালতে চালান দিয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, কালিপূজা উপলক্ষে গত ২৭ অক্টোবর বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ওই শিক্ষার্থী তার মায়ের সাথে মণিরামপুর উপজেলার পাঁচাকড়ি গ্রামের মামা খোকন বিশ্বাসের বাড়িতে বেড়াতে আসে। ওই দিন বিকেলে পাঁচাকড়ি গ্রামের কালিপদ রায়ের ছেলে স্কুল শিক্ষক শিবপদ রায় (৪৫) ওই বুদ্ধিপ্রতিবন্ধীকে পূজার খরচ দেয়ার লোভ দেখিয়ে নিজ বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। এসময় বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ঘরের মধ্যে নিয়ে শিবপদ ওই প্রতিবন্ধীকে ধর্ষণ করে।

এসময় কাউকে না বলতে ভয়ভীতি দেখানো হয়। কিন্তু ভিকটিম তার মামার বাড়িতে ফিরে তার ওপর চালানো পাশবিক নির্যাতনের ঘটনা সবাইকে খুলে বলে। অপরদিকে ধর্ষকের বাড়ি মণিরামপুরে হলেও তিনি ডুমুরিয়ার এইচএম পি.কে কে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

ঘটনার পর ধর্ষককে রক্ষায় স্থানীয় একটি চক্র ধর্ষকের নিকট থেকে লাখ টাকার চেক নিয়ে এলাকায় কথিত শালিসী বৈঠক করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী ওই ভিকটিককে বুধবার রাতে উদ্ধার করে মণিরামপুর থানায় নিয়ে আসে। এরই মধ্যে আটক করা হয় ধর্ষক শিবপদ রায় কে। এ ঘটনায় বুধবার রাতে ওই ছাত্রীর মা মামলা দায়ের করেন।

মণিরামপুর থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, ধর্ষককে আদালতে সোপর্দ করার পাশাপাশি ভিকটিমকের ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য তাকে পুলিশ হেফাজতে যশোরে পাঠানো হয়েছে।