সংবাদ শিরোনাম

‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চায়ের স্টলে ইতালি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যাগোবিন্দগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দূঘর্টনায় স্কুল শিক্ষকসহ একই পরিবারের ৪ জন নিহতময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদের পানিতে ডুবে মারা গেলো ৩ শিশুমুহুর্তেই ভয়াবহ আগুন! স্কুলেই পুড়ে মরলো ২০ শিশু শিক্ষার্থী!সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু আর নেইসব রেকর্ড ভেঙে চুরমার, একদিনেই ৯৬ জনের মৃত্যু

  • আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

দুই বর্ষের একই প্রশ্নে পরীক্ষা: ইবির দুই শিক্ষকের সাজা, পরীক্ষা বাতিল

১:২৭ অপরাহ্ন | রবিবার, নভেম্বর ১৭, ২০১৯ শিক্ষাঙ্গন

রায়হান মাহবুব, ইবি প্রতিনিধি- ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ইংরেজি বিভাগে দুই বছরের একই প্রশ্নপত্রে চূড়ান্ত পরীক্ষা গ্রহণ করায় পরীক্ষা বাতিলসহ দুই শিক্ষককে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে।

শনিবার (১৬ নভেম্বর) বিভাগের একাডেমিক সভায় এসব সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়েছে বলে ইংরেজী বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সালমা সুলতানা নিশ্চিত করেছেন।

বিভাগ সূত্রে, বিভাগের তৃতীয় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষায় (২০১৯) গত ৯ নভেম্বর ‘এলিজাবেথান এ্যান্ড জ্যাকোবিয়ান ড্রামা’ (৩০৫) নং কোর্সের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত প্রশ্নপত্রের ৪টি প্রশ্ন বাদে সবগুলো প্রশ্নের হুবহু মিল পাওয়া যায়। জানা যায়, ৮০ নম্বরের পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে ৫ সেটে দশটি প্রশ্ন থাকে। শিক্ষার্থীকে প্রতি সেট থেকে যেকোনো একটি করে উত্তর দিতে হয়। এছাড়া ৬ নং সেটে আরও ৮টি ছোট প্রশ্ন থাকে। এর মধ্যে শিক্ষার্থীকে ৪টি প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়।

ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত পরীক্ষার ১৮ টি প্রশ্নের সঙ্গে ২০১৯ সালের ১৪টি প্রশ্ন হুবহু মিল পাওয়া যায়। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয় এবং বিভিন্ন গনমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশিত হয়। ফলে শনিবার অনুষ্ঠিত একাডেমিক সভায় এসব সিদ্ধান্ত গ্রহন করে সংশ্লিষ্ট বিভাগ

একাডেমিক সভা সূত্রে, দুই বছরের একই প্রশ্নপত্রে চূড়ান্ত পরীক্ষা গ্রহণ করায় তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা কমিটির সভাপতি সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আজগর হোসেনকে এক বছরের জন্য পরীক্ষার সকল প্রকার কার্যক্রম থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে কোর্স শিক্ষক সহকারী অধ্যাপক সাজ্জাদ হোসেন জাহিদকে আগামী দুই বছরের জন্য ঐ কোর্সের পাঠদানে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। একই সঙ্গে উক্ত কোর্সের পরীক্ষাটি বাতিল করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে ইংরেজী বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. সালমা সুলতানা সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা বিভাগীয় সভায় এ পরীক্ষাটি বাতিল করেছি। পরবর্তীতে এ কোর্সের পরীক্ষা আবার অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষা কমিটির নতুন সভাপতির দায়িত্ব কাকে দেওয়া হবে সেটিও নির্ধারণ করেছি।’