সংবাদ শিরোনাম

ভাঙ্গায় রাতের আঁধারে দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর-লুটপাট : আহত-১৫বিয়ের প্রতিশ্রুতিতে তরুণীর সর্বস্ব কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধেমহাসড়ক যানশূন্য, শিমুলিয়ায় ফেরি পারাপার বন্ধ‘তালা ভেঙ্গে মসজিদে তারাবি পড়ার চেষ্টা্’‌, পুলিশের বাধায় সংঘর্ষে মুসল্লিরা‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চায়ের স্টলে ইতালি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যাগোবিন্দগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দূঘর্টনায় স্কুল শিক্ষকসহ একই পরিবারের ৪ জন নিহত

  • আজ ২রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

রংপুরে লবণের দাম বেশি নেয়ায় পৌনে এক লাখ টাকা জরিমানা

১০:২১ অপরাহ্ন | বুধবার, নভেম্বর ২০, ২০১৯ রংপুর
Rangpur Lobon

সাইফুল ইসলাম মুকুল,রংপুর প্রতিনিধি:   রংপুরে বেশি দামে লবণ বিক্রির অভিযোগে দশ ব্যবসায়ীকে পৌনে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর । এছাড়া বিভিন্ন স্থান থেকে কয়েকজনকে আটক করা হলেও পরে মুচলেকা ও আর্থিক জরিমানা নিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত থেকে আজ বুধবার দুপুর পর্যন্ত রংপুরের বিভিন্ন বাজারে অভিযান পরিচালনা করে এই জরিমানা করা হয়। নগরীর সিটি বাজার সংলগ্ন কৈশাল রঞ্জন সড়কে ভোলা স্টোর নামে এক ব্যবসা প্রতিষ্টানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়াও পীরগঞ্জে একই অভিযোগে আবু বক্কর ও মানিক মিয়া নামে দুই লবণ ব্যবসায়ীকে অর্থদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিকে  গুজব ছড়িছে লবণের দাম বেশি নেওয়ার অপরাধে সকালে রংপুর মহানগরের বাস টার্মিনাল বাজার ও মর্ডাণ মোড় বাজারে চারজন ব্যবসায়ীকে ২৫ হাজার টাকা আর্থিক জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ।  সিটি বাজারে দোকানে মূল্য তালিকা না টাঙানোর কারণে কয়েকজন কাঁচামাল ব্যবসায়ীকে ১০ হাজার জরিমানা করা হয়।

লবণ গুজব বন্ধ করাসহ জনসাধারণকে বিভান্ত না হবার আহ্বান জানিয়ে রংপুর মহানগরসহ জেলার প্রতিটি উপজেলায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করা হচ্ছে। এছাড়াও বাজারগুলোতে তাৎক্ষণিক মনিটরিং কার্যক্রম করছে প্রশাসন। এতে করে জনমনে স্বস্তি ফিরলেও অনেক স্থানে অসাধু ব্যবসায়ীরা বাড়তি দামে লবণ বিক্রি করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিশেষ করে অলিগলিতে গড়ে উঠা দোকানে গুজবের সুযোগ নিয়ে ৩০ টাকার লবণের প্যাকেট ৫০-৬০ টাকা মূল্যে বিক্রি করা হয়েছে।

তবে পুলিশ প্রশাসন, জেলা প্রশাসন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরসহ নির্বাহী ম্যাজিষ্টেট লবণ গুজব রুখতে মাইকিং, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব বিরোধী প্রচারণা ও ব্যবসায়ীদের সাথে মতবিনিময়সহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

এ ব্যাপারে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর রংপুর উপ-পরিচালক খন্দকার মোহাম্মদ নুরুল আমিন জানান, গুজবের কারণে সাধারণ মানুষ যাতে বিভ্রান্ত না হয়, সেজন্য আমরা কাজ করছি। পাশাপাশি ব্যবসায়ীরা যাতে বেশি দামে লবণ বিক্রির সুযোগ না পায়, এজন্য বাজার মনিটরিংয়ের সাথে অভিযোগের প্রমাণ সাপেক্ষে জরিমানাও করা হচ্ছে।