সংবাদ শিরোনাম
মীরডাঙ্গীর ব্রীজটিই যেন গ্রামবাসির দুর্ভোগের একমাত্র কারণ! | তারেক এতো দূর্নীতি, অন্যায় ও মানুষ খুন করেছে তার সাহস নাই বাংলাদেশে আসার: কৃষিমন্ত্রী | ঢাবি ছাত্রী ধর্ষণ: ডিএনএ পরীক্ষায়ও মিলেছে মজনুর সম্পৃক্ততা | কুকরি মুকরিতে পর্যটকদের বাড়তি আনন্দ দিতে যোগ হয়েছে রংবেরঙের নৌকা | ভারতের পাটনায় বোরকা পরে কলেজে আসলে জরিমানা | লক্ষ্মীপুর ৫ম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে ৭০বছরের বৃদ্ধ গ্রেফতার | সীমান্তে হত্যার প্রতিবাদে জাবি ছাত্রের অনশন | সীমান্তে হত্যার প্রতিবাদে রাজু ভাস্কর্যে ঢাবি শিক্ষার্থীর অবস্থান | ‘সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতির কারণে বিএসএফ দুঃসাহস দেখাতে পারছে’ | শাহজাদপুরে ইয়াবা বিক্রেতা ও গরুচোরসহ ৭জন আটক |
  • আজ ১৩ই মাঘ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জাতিসংঘে বাংলাদেশের প্রস্তাব পাস

৯:৫৬ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, নভেম্বর ২২, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
jati

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ বিশ্বের টেকসই উন্নয়নের কাজে পাটসহ কয়েকটি প্রাকৃতিক তন্তুকে ব্যবহারের জন্য জাতিসংঘে একটি প্রস্তাব দিয়েছিল বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) নিউইয়র্কে জাতিসংঘের প্রধান কার্যালয়ে সর্বসম্মতিক্রমে প্রস্তাবটি পাস হয়।

বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রস্তাবটির পক্ষে বিশ্বের ৬৮টি দেশ সমর্থন দেয়। জাতিসংঘের চলতি ৭৪ তম সাধারণ পরিষদের দ্বিতীয় কমিটিতে সর্বসম্মতিক্রমে প্রস্তাবটি গৃহীত হয়।

জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন থেকে এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জাননো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ভারত, চীন, রাশিয়া, আয়ারল্যান্ড, কানাডা, ইন্দোনেশিয়া, সিঙ্গাপুর, তুরস্ক, মিশর, নাইজেরিয়াসহ ৬৮টি দেশ এই প্রস্তাবে সমর্থন দেয়। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রাথমিকভাবে প্রস্তাবটিতে পাট এবং অন্যান্য প্রাকৃতিক তন্তু যেমন অ্যাবাকা, কয়ার, কেনাফ, সিসাল, হেম্প ও রামি এর ব্যবহার এবং উন্নয়নের কথা বলা হয়েছে।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের প্রথম এ ধরনের একটি প্রস্তাব পাস হলো। যেখানে অর্থনৈতিক ও পরিবেশগতভাবে টেকসই এবং সামাজিকভাবে লাভজনক কৃষি পণ্য পাট ও অন্যান্য প্রাকৃতিক তন্তুর চ্যালেঞ্জ এবং সম্ভাব্যতা তুলে ধরা হয়েছে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন বলেন, ‘এই প্রস্তাব অনুমোদন হওয়ায় প্রাকৃতিক বাংলাদেশের পাট ও পাটজাত দ্রব্যের অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পরিবেশগত উপকারিতা বিশ্ববাসী জানল। এতে এসব পণ্যের উৎপাদকদের ভালো দাম পাওয়া সহজ হলো আর বিশ্ববাসী এ ধরনের একটি পরিবেশবান্ধব পণ্য ব্যবহার সম্পর্কে জানতে পারল।’

Loading...