• আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রীকে এরশাদপুত্রের আবেগঘন চিঠি

২:২৪ অপরাহ্ন | শনিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে চিঠি দিয়েছেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছেলে এরিক এরশাদ। শনিবার চিঠিটি দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এরিকের মা বিদিশা।

একই চিঠির অনুলিপি দেওয়া হয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের আইজিপি, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ও জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতিকে।

চিঠিতে এরিক অভিযোগ করে বলেছেন, ‘আমার বাবা এরশাদের মৃত্যুর পর থেকে চাচা (জিএম কাদের) ও তার অনুগতরা বিভিন্নভাবে আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে আসছে। নিরাপত্তাজনিত কারণ দেখিয়ে তারা কৌশলে আমার বাবার লাশ পর্যন্ত আমাকে দেখতে দেয়নি। ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে মায়ের বিরুদ্ধে বিভিন্ন রকম অপবাদ দিয়ে মা-ছেলের সম্পর্ককে ছিন্ন করেছিলেন। কখনও কখনও আমাকে রাখা হতো অনাহারে, অর্ধাহারে। এমনকি আমার বাড়িতে কর্মরত ড্রাইভার ও কাজের বুয়াদের দিয়ে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হতো।’

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, ‘প্রধানমন্ত্রী আমি একজন অসহায় পিতৃহারা শারীরিক প্রতিবন্ধী বালক। অন্যের সহযোগিতা ছাড়া ঠিকমতো চলতেও পারি না। আমি যেহেতু প্রাপ্তবয়স্ক, আমার স্বাধীনভাবে মত প্রকাশের অধিকার রয়েছে। তাই আমার মাকে নিয়ে নিজ বাড়িতে সুন্দরভাবে বসবাস করতে চাই।’

প্রধানমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ জানিয়ে এরিক বলেছেন, ‘আপনি আমাদেরকে আমার অর্থ ও সম্পদ লোভী চাচা জিএম কাদেরের হাত থেকে রক্ষা করার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করলে চিরকৃতজ্ঞ থাকবো।’

এদিকে, শুক্রবার (২২ নভেম্বর) সন্ধ্যায় বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কে সংবাদ সম্মেলনে এরিক বলেন, ‘আমার সম্পদের ওপর চাচার লোভ রয়েছে। আমরা ভয়ে বাসার বাইরে যেতে পারছি না। বাসা থেকে বের হলে আর প্রবেশ করতে পারব কি না, এমন ভয় পাচ্ছি ।’

সংবাদ সম্মেলনে এরিক চাচা জিএম কাদেরের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার চাচা বলেছেন, বল প্রয়োগ করে মা (বিদিশা) এখানে এসেছেন। এটা ভিত্তিহীন। তিনি আরও বলেন, মা নাকি অস্ত্র নিয়ে বাসায় এসেছেন, এটা সত্য কথা না।’

এরিক বলেন, ‘তিনি (বিদিশিা) নিজের আসেননি। আমিই মাকে ফোন করে খাবার রান্না করে আসতে বলেছিলাম। আমি তাকে এখানে থাকতে বলেছি।’

মৃত্যুর আগে তার বাবা সাবেক প্রেসিডেন্ট এরশাদ এরিককে নাকি বলে গেছেন মাকে যেন কোনোভাবে কষ্ট না দেয়। এরিক বলেন, ‘বাবা বলেছেন মায়ের পায়ের নিচে সেন্তানের বেহেশত। রাজনৈতিক কারণে আমি তোমার মাকে অনেক কষ্ট দিয়েছি। তুমি আর নতুন করে কোনো কষ্ট দিও না।’

প্রতিবন্ধী এরিক এরশাদ মা বিদিশাকে সঙ্গে রাখার ইচ্ছা জানিয়ে সম্প্রতি গুলশান থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। তাতে তিনি বলেছেন, খাওয়া-দাওয়াসহ সবকিছুতে তার অসুবিধা হচ্ছে। তাই সঙ্গে মাকে রাখা প্রয়োজন।