• আজ শুক্রবার। গ্রীষ্মকাল, ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ। ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ। বিকাল ৩:৩০মিঃ

গোপালগঞ্জে রক্ষকই ভক্ষক, সড়কের ৫টি গাছ কেটে নিলেন বন কর্মকর্তা!

⏱ | শনিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৯ 📁 ঢাকা, দেশের খবর

এইচ এম মেহেদী হাসানাত, স্টাফ রিপোর্টার, গোপালগঞ্জ- গোপালগঞ্জে সামাজিক বনায়ন কর্মসূচীর ৫টি গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ফরিদপুর বন বিভাগের প্রধান সহকারী জাকির হোসেন শেখের বিরুদ্ধে।

জাকির হোসেন শেখ গোপালগঞ্জ-কোটালীপাড়া আঞ্চলিক সড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার শিবপুর ও খেলনা নামক স্থান থেকে তিনি গাছ ৫টি গোপনে কেটে আত্নাসাতের উদ্দেশ্য স’ মিলে রাখেন। তার বিরুদ্ধে আগেও এ সড়ক থেকে গাছ কাটার অভিযোগ রয়েছে।

ফরিদপুর বন বিভাগের প্রধান সহকারী জাকির হোসেন শেখ গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার শিবপুর গ্রামের মৃত নওয়াব আলী শেখের ছেলে। ৫টি গাছের মধ্যে ৩টি স’মিলে ও ২টি নিজের বাড়িতে রাখেন বলে স্থানীয়রা জানান।

আজ শনিবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাদিকুর রহমান খানের নির্দেশে গোপালগঞ্জ বন বিভাগ কাজুলিয়া ও দত্তডাঙ্গার দু’টি স’মিল থেকে ৩টি গাছের লক উদ্ধার করেছে।

এর আগে মাঝিগাতী উপসহকারী ভূমি কর্মকর্তা মোঃ রাকিবুল ইসলাম কাজুলিয়া ও দত্তডাঙ্গার দু’টি স’মিলে ওই ৩টি গাছের লক চিহ্নিত করে।

জানা যায়, ঘুর্নিঝড় বুলবুলের পর ওই সড়কে গাছ কাটার খবর পেয়ে মাঝিগাতী-কাঠি সামাজিক বনায়ন সমিতির সভাপতি আরমান খান ও সমিতির সদস্য আমিনুর কাজী গাছ কাটায় বাধ দেন। বাধা অমান্য করেও তিনি গাছ কেটে নেন।

কাজুলিয়া স’ মিলের মালিক আব্দুল হাকিম মোল্লা জানান, তার মিলে একটি বড় তেলি কদম গাছ রাখে জাকির হোসেনের সহযোগি মোলাম মোল্লা। তারা এ গাছ চেরাই করে পরে নিয়ে যাবে বলে জানান। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর এ গাছ বন বিভাগ স’ মিল থেকে উদ্ধার করে নিয়ে গেছে।

তিনি আরো জানান, দত্তডাঙ্গার আশরাফুলের স’ মিলেও তারা গাছ রাখে। এ সব গাছ গুলোর মূল্য আনুমানিক ১ লাখ টাকা হবে।

অভিযুক্ত ফরিদপুর বনবিভাগের প্রধান সহকারী জাকির হোসেন শেখ আগে এ সড়ক থেকে গাছ কাটার কথা অস্বীকার করে বলেন, ঝড়ে সড়কে গাছ পড়ে যায়। আমি এ গাছ কেটে স’ মিলে পাঠিয়েছি। তবে তিনি গাছ আত্নাসৎ করার উদ্দেশ্যে সমিলে রাখেননি বলে জানান। তার বাড়িতে কোন গাছ নেই বলে জানান।

গোপালগঞ্জ বন বিভাগের বন সংরক্ষক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, দু’ টি স’মিল থেকে গাছ উদ্ধার করা হয়েছে। ফরিদপুর বন বিভাগের প্রধান সহকারী জাকির হোসেন শেখ স’ মিলে গাছ রেখে অন্যায় করেছে। সেখানে তার গাছ রাখা ঠিক হয়নি।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাদিকুর রহমান খান বলেন, গাছ গুলো উদ্ধার করে নিলাম প্রক্রিয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।