• আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘১০ দিনের মধ্যে পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে আসবে’- বাণিজ্যমন্ত্রী

৯:২৬ অপরাহ্ন | শনিবার, নভেম্বর ২৩, ২০১৯ জাতীয়
bani

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, আগামী ১০ দিনের মধ্যে পেঁয়াজের বাজার সম্পূর্ণভাবে নিয়ন্ত্রণে আসবে। শনিবার (২৩ নভেম্বর) ঢাকায় হোটেল ওয়েস্টিনে বাংলাদেশ চেম্বার অব ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত ‘Ease of Doing Business : Way Forward’ শীর্ষক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, আগামী দশ দিনের মধ্যে দেশি পেঁয়াজ উঠা শুরু হবে। তখন বাজার নিয়ন্ত্রণে আসা শুরু হবে। এছাড়া আশা করছি, ২৯ তারিখের মধ্যে কম করে হলেও ১২ হাজার টন পেঁয়াজ চট্টগ্রাম বন্দরে আসবে।

পেঁয়াজের দাম কমার পর আবারও বাড়ার কথা স্বীকার করে টিপু মুনশি বলেন, সম্প্রতি পেঁয়াজের দাম কমে এলেও পরিবহন ধর্মঘটের কারণে আবার দাম কিছুটা বেড়েছে। গত চার দিন ধরে ট্রান্সপোর্টের একটা সমস্যা হচ্ছে, ট্রাক পাচ্ছে না। এটাও একটা কারণ।

গত চার মাস ধরেই দেশের পেঁয়াজ বাজার অস্থিতিশীল। সংকট কাটাতে তুরস্ক, মিশর, মিয়ানমারসহ কয়েকটি দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু করেছে সরকার। ইতোমধ্যে কয়েকটি চালান পৌঁছেছে, আরও পেঁয়াজ দেশে আসার অপেক্ষায়।

এরমধ্যে ২৭০ থেকে পেঁয়াজের দাম নেমে যায় ১৫০ টাকায়। তবে গত দুইদিন ধরে আবার বেড়ে যায় যায়। এখন ১৮০ থেকে ২০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ।

এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, পেঁয়াজের দাম ওইভাবে নিয়ন্ত্রণে আসছে না, শুক্রবার আবারও পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। গতকাল (শুক্রবার) উত্তরার বাজার থেকে আমি নিজে কিনেছি ১৪০ টাকা করে দেশি পেঁয়াজটা। এটা তো বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন রকম।

পেঁয়াজের দাম কেন কমছে না প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, পেঁয়াজের ব্যপারে প্রথম কথা হল, এটা দুইশ টাকার উপরে উঠেছিল। আপনারা জানেন, আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। এমনকি এয়ারে (বিমানে) করে নিয়ে আসা হয়েছে। এখন দামটা নেমে এসেছে। এখন মিশর বা টার্কি থেকে যেটা আসছে সেটা ১২০ টাকা। আর আমাদের দেশি পেঁয়াজটা ১৪০ থেকে ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

পেঁয়াজ সংকটের চিত্র তুলে ধরে টিপু মুনসি বলেন, “আমাদের ২৫ শতাংশ পেঁয়াজ আমদানি করতে হয়। এই ২৫ শতাংশের ৯০ ভাগ আসে ভারত থেকে। ২৯ সেপ্টেম্বর ভারত রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে।

“সেপ্টেম্বর, অক্টোবর, নভেম্বরে প্রতিমাসে আমাদের ১ লাখ টন করে আমদানি হত। সেখানে সেপ্টেম্বরে এসেছে ২৫ হাজার টন, ৭৫ হাজার টন ঘাটতি থাকল। অক্টোবরে ২৪ হাজার টন এসেছে, সেখানেও ৭৬ হাজার টন ঘাটতি। এখন আমাদের পেঁয়াজ আসতে শুরু করেছে।