• আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

‘ভারত অত্যন্ত সম্মানের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীকে গ্রহণ করেছে’- পররাষ্ট্রমন্ত্রী

১০:২৫ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, নভেম্বর ২৬, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ
por

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ কলকাতার ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যকার প্রথম দিবারাত্রি টেস্টের উদ্বোধনী আয়োজনে যোগ দিতে ভারতে যান বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অত্যন্ত সম্মানের সঙ্গে গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

মঙ্গলবার রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে দুই দিনব্যাপী ৩৩তম সিএসিসিআই সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কথা জানান।

২২ নভেম্বর শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী কলকাতায় যান। প্রধানমন্ত্রীকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানান ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলি। সেখানে মোদির কেন্দ্রীয় সরকারের কোনো মন্ত্রী বা প্রতিনিধি ছিলেন না, ছিলেন না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ও।

এ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের প্রভাবশালী বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা একটি মন্তব্য প্রতিবেদন প্রকাশ করে, যার শিরোনাম ছিল ‘মিত্র হাসিনার শীতল অভ্যর্থনা, কাঠগড়ায় দিল্লি’। পত্রিকাটি লিখেছে, ‘প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণে কলকাতায় এলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা। কিন্তু তাকে স্বাগত জানাতে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে কোনো মন্ত্রী, এমনকি শীর্ষ আমলাকেও পাঠানো হয়নি। যা কি না বাঁধাধরা কূটনৈতিক প্রথা এবং সৌজন্যের বিরোধী।’

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরটির উদ্বৃতি দিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ড. মোমেন বলেন, ‘না, এইটা আমার মনে হয় না। অত্যন্ত সম্মানের সঙ্গে তাকে (প্রধানমন্ত্রী) গ্রহণ করেছে।’

রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার বিভিন্ন জায়গায় অপপ্রচার চালাচ্ছে যে, আমরা রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর জন্য নাকি প্রস্তুত নই। এটা তাদের অপপ্রচার। রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে আমরা এক পায়ে দাঁড়িয়ে। আমাদের দিক থেকে প্রস্তুতির কোনো ঘাটতি নেই।

অপর এক প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এনআরসি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটা নিয়ে তাদের সঙ্গে আলাপ হয়েছে। তারা আমাদের এনআরসি নিয়ে আশ্বাস দিয়েছে, বলেছে এটা তাদের বিষয়।

বাংলাদেশে ভারতের নাগরিকদের পুশ ইন করা হচ্ছে কিনা জানতে চাইলে ড. মোমেন বলেন, এমন খবর আমাদের জানা নেই। সরকারিভাবেও কেউ এটা আমাদের জানায়নি।