সংবাদ শিরোনাম

‘লঘু পাপে গুরু দণ্ড’; তিনটি মুরগি চুরির দায়ে দেড়লাখ টাকার জরিমানা চার তরুণের!কুড়িগ্রামের সবগুলো নদ-নদী শুকিয়ে গেছে, হুমকীতে জীব-বৈচিত্রহেফাজতের আরেক কেন্দ্রীয় নেতা গ্রেপ্তারমধুখালীতে বান্ধবীর সহায়তায় অচেতন করে দফায় দফায় ধর্ষণের শিকার নারী!বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে চায়ের স্টলে ইতালি প্রবাসীকে কুপিয়ে হত্যাগোবিন্দগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দূঘর্টনায় স্কুল শিক্ষকসহ একই পরিবারের ৪ জন নিহতময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদের পানিতে ডুবে মারা গেলো ৩ শিশুমুহুর্তেই ভয়াবহ আগুন! স্কুলেই পুড়ে মরলো ২০ শিশু শিক্ষার্থী!সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু আর নেইসব রেকর্ড ভেঙে চুরমার, একদিনেই ৯৬ জনের মৃত্যু

  • আজ ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ভারতের অযোধ্যায় শীতে গরুকে জ্যাকেট দেবে প্রশাসন

৪:০৮ অপরাহ্ন | বুধবার, নভেম্বর ২৭, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
ayodhya-cows

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ শীতের কথা মাথায় রেখে গরুর জন্য পাটের জ্যাকেট কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতের উত্তর প্রদেশের বিজেপি শাসিত অযোধ্যা পৌরসভা। শীতে ওই শহরের গোশালার গরুগুলোর কষ্ট লাঘব করতে এ পদক্ষেপ নিয়েছে পৌর প্রশাসন।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গরুর প্রতিটি জ্যাকেটের দাম ধরা হয়েছে ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা। প্রথম দফায় ১০০টি জ্যাকেট তৈরি করা হবে। আর সেগুলো নভেম্বর মাসের মধ্যেই হাতে পাবে প্রশাসন। দেশটির সংবাদমাধ্যম এই সময়’র এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

অযোধ্যা নগর নিগমের কমিশনার নীরজ শুক্লা বলেন, আমরা গরুর জন্য জ্যাকেট কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। প্রাথমিকভাবে গরুর বাছুরের জন্য ১০০টি জ্যাকেট কেনা হচ্ছে। বাকি জ্যাকেট পরে আরও কেনা হবে।

তিনি বলেন, তিন থেকে চারটি পর্যায়ে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। বৈশিংপুর খামারে গবাদিপশুগুলোকে জ্যাকেট পরানো দিয়ে প্রকল্প শুরু হবে। ওই খামারে ৭০০ ষাঁড়সহ প্রায় ১২০০ গবাদিপশু আছে।

কেমন হবে সেসব জ্যাকেট? গরুদের শীত মানবে তো! এমন প্রশ্ন এখন খামারিদের মুখে।

এ বিষয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বাছুরদের জন্য যে জ্যাকেট তৈরি হচ্ছে তাতে তিনটি স্তর থাকবে। একেবারের শেষ স্তরে পাটের পরিবর্তে অন্য কোনও গরম মোলায়েম কাপড় ব্যবহার করতে বলা হয়েছে। এছাড়া গরু ও ষাঁড়ের জন্য তৈরি জ্যাকেটের নকশাও সম্পূর্ণ আলাদা। ষাঁড়ের জ্যাকেট শুধু পাটের তৈরি হবে। তবে গরুর জ্যাকেটে থাকবে দুটি স্তর।’

এছাড়াও শীতের মৌসুমে গরুর যাতে কষ্ট না হয় সে জন্য প্রতিটি গোশালায় বনফায়ারের ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন। একইসঙ্গে গোশালার মেঝেতে বিছিয়ে দেওয়া হবে খড়। গরুর পরিষেবা দেওয়া তাদের অন্যতম লক্ষ্য বলে জানিয়েছে পৌরসভা কর্তৃপক্ষ।