সংবাদ শিরোনাম

ছাত্রলীগ নেতার প্যান্ট চুরির ভিডিও ভাইরাল!পাটগ্রামে ইউএনও’র উপর হামলা, আটক ৬আগের সব রেকর্ড ভেঙ্গে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু ৮৩ জনেরশফী হত্যা মামলা: মামুনুল-বাবুনগরীসহ ৪৩ জনকে অভিযুক্ত করে প্রতিবেদনখালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় সারাদেশে দোয়া কর্মসূচিরোহিঙ্গা শিবিরে ফের অগ্নিকান্ডসালথায় তান্ডব: এসিল্যান্ডের বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগের সত্যতা মিলেনিশাহজাদপুরে কৃষকদের মাঝে হারভেস্টার মেশিন বিতরণচাঁদপুরে গণমাধ্যম সপ্তাহের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি পেতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপিশ্রমিকদের যাতায়াতের ব্যবস্থা না করলে আইনি পদক্ষেপ : শ্রম প্রতিমন্ত্রী

  • আজ ৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

রাতে দেশে ফিরছেন সৌদিতে নির্যাতিত হুসনা আক্তার

৯:১৫ অপরাহ্ন | বুধবার, নভেম্বর ২৭, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ
Husna-aktar-1911261639

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ আজ বুধবার (২৭ নভেম্বর) রাত ১১টায় দেশে ফিরছেন সৌদিতে গৃহকর্তা কর্তৃক নির্যাতনের শিকার হবিগঞ্জের মোছা. হুসনা আক্তার (২৪)। ঢাকার হযরত শাহজালাল (র) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের প্রবাসীকল্যাণ ডেস্কের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন হুসনার স্বামী শফি উল্লাহ।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের উদ্যোগে হুসনা আক্তারকে উদ্ধারের পর সেফহোমে রাখা হয়েছে। বর্তমানে তিনি নিরাপদে আছেন। জেদ্দা থেকে প্রায় এক হাজার কিলোমিটার দূরে নাজরান পুলিশ হুসনা আক্তারকে উদ্ধার করে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের দ্রুত হস্তক্ষেপে হুসনা আক্তারকে সোমবার (২৫ নভেম্বর) উদ্ধার করা হয়।

ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের উপ-পরিচালক জাহিদ আনোয়ার বলেন, বুধবার রাত ১১টায় সৌদি এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে হুসনা আক্তারের শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছার কথা রয়েছে। ভিডিও বার্তায় দেখে হুসনাকে দেশে ফেরাতে উদ্যোগ নেয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, প্রবাণী কল্যাণ মন্ত্রণালয় ও সৌদি আরবের বাংলাদেশ দূতাবাস।

তিনি বলেন, জেদ্দা কনস্যুলেট হুসনা আক্তারকে উদ্ধারের জন্য নাজরান পুলিশকে অবহিত করে। হুসনা আক্তার সৌদি রিক্রুটিং অফিস ‘রুয়াদ নাজরান’র (লাইসেন্স নং- ৩৯১৮৬১৮) মাধ্যমে প্রায় তিন মাস আগে সৌদি আরব যান। তার গ্রামের বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার আজমিরিগঞ্জ উপজেলায়। তার বাবার নাম মুজিবুর রহমান।

এদিকে তিন সপ্তাহ আগে গৃহকর্মীর কাজ নিয়ে সৌদি আরব গিয়েছিলেন হুসনা। রোববার (২৪ নভেম্বর) দেশবাসীর উদ্দেশ্যে একটি ভিডিও বার্তা পাঠান নির্যাতনের শিকার হুসনা আক্তার। তার স্বামী তাদের এক আত্মীয়ের সাহায্যে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে পোস্ট করলে তা ছড়িয়ে পড়ে।

ভিডিও বার্তায় হুসনা আক্তার বলেন, ‘আমি আর পারতাছি না। তোমরা যেভাবে পারো আমারে তোমরা বাঁচাও। এরা আমারে বাংলাদেশ পাঠাইতো চায় না। এরা আমারে ইতা করতাছে। অনেক অত্যাচার করতাছে। আমারে ভালা কামের কথা কইয়া পাঠাইছে দালালে। আমারে ইতা করতাছে ওরা। আমি আর পারতাছি না সহ্য করতাম। তোমরা যেভাবে পারো আমারে নেও’।

চলতি বছরের প্রথম ১০ মাসে অন্তত ৯৬১ জন নারী সৌদি থেকে দেশে ফিরে এসেছেন। গৃহকর্মে যাওয়া এই নারীদের বেশিরভাগই নির্যাতনের শিকার হওয়ার অভিযোগ করছেন তাদের নিয়োগকর্তার বিরুদ্ধে। হুসনার মতো নাজরান শহরে থাকা গৃহকর্মী পঞ্চগড়ের সুমি আক্তারও ভিডিও বার্তায় তার উপর নির্যাতনের অভিযোগ দেশে জানিয়েছিলেন। এরপর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে তাকে উদ্ধারের উদ্যোগ নেওয়া হলে গত ১৫ নভেম্বর তাকে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়।