• আজ ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

আসন্ন স্থানীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণের ঘোষণা ইসলামী আন্দোলনের

১০:৫৬ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ডিসেম্বর ৪, ২০১৯ দেশের খবর

সময়ের কন্ঠস্বর ডেস্ক:জাতীয় নির্বাচনে সাড়া জাগানোর পর এবার ইসলামী আন্দোলনের টার্গেট ৪২০০ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং ৩৮০০০ ওয়ার্ডে মেম্বার প্রার্থী; শিক্ষিত এবং তরুণ শ্রেণীকে প্রার্থী বাছাইয়ের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার।

এবারের চরমোনাইর অগ্রহায়ণের মাহফিলে ইসলামী আন্দোলনের কর্মী ও সমর্থকদের জন্য আমীরের তাৎপর্যপূর্ণ ঘোষণা ছিল, আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে হাতপাখা প্রতীক নিয়ে দেশের সবকটি ইউনিয়ন এবং ওয়ার্ডের নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য প্রস্তুতির ঘোষণা।

গতবছর ৩০ ডিসেম্বর প্রহসনের নির্বাচন পরবর্তী ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের অধীনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ কোন নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করায় আগামী সিটি কর্পোরেশনসমুহের নির্বাচন এবং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে মাঠ পর্যায়ে কিছুটা সংশয় ছিল। আন্দোলনের আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম পীরসাহেব চরমোনাইর ঘোষণার মধ্য দিয়ে চলমান সংশয় কেটে গেছে।

গতবারই প্রথম ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয়ভাবে প্রার্থী দেয়। গতবার পর্যাপ্ত প্রস্তুতি না থাকায় সারাদেশে প্রায় ১০০০ ইউনিয়নে প্রার্থী দেয়া হয়। এবার দলটি পরিকল্পনা করেছেন সারাদেশে ৪ হাজার ২০০ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী এবং ৩৮ হাজার ওয়ার্ডে মেম্বার প্রার্থী দেয়ার।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত চরমোনাইর অগ্রহায়ণের মাহফিল থেকে ঘোষণা পাওয়ার পর সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের মধ্যে কর্মতৎপরতা বৃদ্ধি এবং ফুরফুরে ভাব লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ একটি গণমুখী রাজনৈতিক দলে হিসেবে সর্বসাধারণের নিকট নেতৃত্ব পৌঁছে দিতে হলে ‘স্থানীয় নির্বাচনের বিকল্প নাই’ এই নীতিকথা তারা বুঝতে পেরেছে বলে মনে করছে রাজনীতি।

সময়ের কণ্ঠস্বর/ফয়সাল

Skip to toolbar