যারা দেশের পক্ষে দাঁড়িয়েছে তারা হচ্ছে নুরুল হক নুর: আসিফ নজরুল

❏ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ২৪, ২০১৯ জাতীয়

রবিউল ইসলাম, সময়ের কণ্ঠস্বর- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ভবনে ভিপি নুরুল হক নুরের ওপর হামলার ঘটনা ন্যাক্কারজনক ও নজিরবিহীন বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল।

মঙ্গলবার (২৪ ডিসেম্বর) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে সন্ত্রাস বিরোধী ছাত্র ঐক্য-এর ব্যানারে এক সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

গত রোববার (২২ ডিসেম্বর) দুপুরে ডাকসু ভবনে ভিপি নুরসহ তার অনুসারীদের ওপর ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের হামলার প্রতিবাদে আজ বিকালে ‘ছাত্র-জনতার সংহতি’ নামে এই সমাবেশের আয়োজন করে শিক্ষার্থীরা।

এ সময় আসিফ নজরুল বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সবচেয়ে বড় চেতনা অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো, দেশের পক্ষে দাঁড়ানো, দেশের মানুষের পক্ষে দাঁড়ানো। যারা দেশের মানুষের পক্ষে দাঁড়িয়েছে, যারা দেশের পক্ষে দাঁড়িয়েছে তারা হচ্ছে সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের নুরুল হক নুর এবং বাম ছাত্র সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ।

ডাকসু ভবনে ঢুকে ভিপি নুরসহ অন্যদের উপর হামলার ঘটনায় দায়ী প্রত্যেককে আইনের আওতায় এনে বিচার করার দাবি জানান তিনি। বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো জায়গায় ছাত্রদের নির্বাচিত প্রতিনিধি ভিপির উপর যেভাবে হামলা চালানো হয়েছে তা ন্যাক্কারজনক ও নজিরবিহীন। যার প্রতিবাদের ভাষা আমার জানা নেই।

অধ্যাপক আসিফ নজরুল বলেন, মুক্তিযুদ্ধের নাম দিয়ে যারা শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করেছে তাদের বিরুদ্ধে দখলদারির অভিযোগ, কারো বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ, একজন হত্যা মামলায় অভিযুক্ত, পত্রিকায় দেখলাম তাদের একজন বিকৃত যৌনাচারেও অভিযুক্ত।

“এই সব ব্যক্তিরা মুক্তিযুদ্ধের নামে মঞ্চ করে যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সবচেয়ে ভালোভাবে ধারণ করেন তাদের উপর আক্রমণ করছে। অথচ হামলাকারীদের অনেকের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আমরা শিক্ষকরা কেউ ধোঁয়া তুলসী পাতা না। আমাদের মধ্যে দলা দলি আছে, কিন্তু সবকিছুর সীমা আছে, আপনারা সীমা লংঘন করে যাচ্ছেন।

“যখন ভিপি নুরসহ অন্যরা হামলার শিকার হচ্ছিল তখন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের কাছে একজন শিক্ষার্থী সাহায্য চাইতে গেলে উল্টো তাকে পুলিশের কাছে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে জানতে পেরেছি। এর চেয়ে ন্যাক্কারজনক, দুঃখজনক ঘটনা আর হতে পারে না।”

অপশক্তির বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে আইন বিভাগের এই অধ্যাপক বলেন, ভয় পাবেন না, মুক্তিযুদ্ধের সবচেয়ে বড় চেতনাই হচ্ছে যেকোনো অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো। আপনাদের সংগ্রাম অব্যহত রাখবেন।