🕓 সংবাদ শিরোনাম

ফ্রান্সের জাতীয় দলে ফিরছেন ”বেনজেমা”কর্ণফুলী থানার পাশেই ছুরিকাঘাতে যুবক খুন সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা করায়  ‘মিডিয়া এডুকেটরস নেটওয়ার্ক’ এর প্রতিবাদসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে আমিরাতে সাংবাদিকদের প্রতিবাদ সভাকক্সবাজারে বিপুল সিগারেটসহ ৩ যুবক আটকরোজিনার সঙ্গে যারা অন্যায় করেছে, তাঁদের জেলে পাঠান: ডা. জাফরুল্লাহকেরানীগঞ্জে ফ্ল্যাট থেকে যুবতীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারপাটগ্রাম সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে নারী ও শিশুসহ ২৪জন আটকসাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়: ভিপি নুরসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন: হানিফ

  • আজ বুধবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৯ মে, ২০২১ ৷

ঈশ্বর সবচেয়ে খারাপ মানুষটিকেও ভালোবাসেন: পোপ ফ্রান্সিস


❏ বুধবার, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- রোমান ক্যাথলিক খিস্টানদের প্রধান ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস বলেছেন, ঈশ্বর প্রত্যেককেই ভালোবাসেন, এমনকী আমাদের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ ব্যক্তিটিকেও ভালোবাসেন তিনি।

বড়দিন শুরুর আগের সন্ধ্যায় ভ্যাটিকানের সেন্ট পিটারস ব্যাসিলিয়ায় সমবেত হাজার হাজার মানুষের সামনে এই মন্তব্য করেন পোপ।

তার কথায়, মানুষ যত গরিব বা পাপীই হোক না কেন তাতে ইশ্বরের অসীম ভালোবাসায় কোনো কমতি হবে না। মানুষ ভুল চিন্তা করতে পারে। সবকিছু গুবলেট করে ফেলতে পারে। কিন্তু ঈশ্বর ভালোবেসেই যান।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, যৌন নিপীড়নসহ চার্চের নানা কেলেংকারির দিকে ইঙ্গিত করে পোপ ফ্রান্সিস এসব মন্তব্য করেছেন বলে ধারণা করছেন অনেকেই।

পোপ বলেন, আমরা প্রায়ই ভাবি ভাল কাজ করলে ঈশ্বর আমাদের ভাল করবেন, আর খারাপ করলে তিনি আমাদেরকে সাজা দেবেন।কিন্তু ঈশ্বর আসলে এমন নন।

সুনির্দিষ্টভাবে কিছু না বললেও চার্চের যৌন নিপীড়ন কেলেঙ্কারি এবং আর্থিক অনিয়মের সাম্প্রতিক সমস্যাগুলোর কথা পোপ তার ভাষণে উল্লেখ করেছেন এবং বলেছেন, ‘আসুন আমরা ঈশ্বরের কথা মাথায় রেখে তার ধ্যানে মগ্ন হয়ে ঐশ্বরিক সেই অপার ভালোবাসার ছায়াতলে নিজেদের সমর্পণ করি।’

মঙ্গলবার ভ্যাটিকানে বড়দিন শুরুর আগের সন্ধ্যার প্রার্থনায় অংশ নেয় বহু শিশু। ভেনিজুয়েলা, ইরাক ও উগান্ডাসহ বিভিন্ন দেশ থেকে তাদের বাছাই করে সেখানে আনা হয়। বুধবার সেন্ট পিটার্স ব্যাসিলিয়ায় ফিরে বিশ্ববাসীর উদ্দেশে বড়দিনের ঐতিহ্যবাহী পেপল বার্তা দেন পোপ ফ্রান্সিস।