গাজায় একই পরিবারের ৯ জনকে হত্যার কথা স্বীকার করলো ইসরায়েল

❏ বুধবার, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৯ আন্তর্জাতিক
gza

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় একই পরিবারের ৯ জনকে হত্যার কথা স্বীকার করেছে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী। ২০১৯ সালের ১৪ নভেম্বর বিমান হামলা চালিয়ে তাদের হত্যা করা হয়। নিহতদের মধ্যে পাঁচ শিশুও রয়েছে।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) কর্তৃক ফিলিস্তিনে ইসরায়েলি যুদ্ধাপরাধের পূর্ণাঙ্গ তদন্তের ঘোষণা আসার পরই মঙ্গলবার বর্বরোচিত ওই হত্যাকাণ্ডের স্বীকারোক্তি দিলো তেল আবিব। ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের কর্মী রাসমি আবু মালহৌস ও তার ভাই মোহাম্মদের বাসাকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করে ওই বিমান হামলা চালানো হয়। চার দফায় চালানো হামলায় নিহত হয় পাঁচ শিশুসহ পরিবারের ৯ সদস্য।

নিহতরা হলেন রাসমি আবু মালহৌস, তার দ্বিতীয় স্ত্রী মারইয়াম (৪৫), রাসমির সন্তান ফিরাস (৩ মাস), সালিম (৩), মোহান্নাদ (১২)। রাসমি-র ভাই মোহাম্মদের বাসায় হামলায় নিহত হন তার স্ত্রী ইউসরা (৩৯), তাদের দুই সন্তান মোয়াজ (৭) এবং ওয়াসিম (১৩)। ওই হামলায় আহত হয়ে ২২ নভেম্বর মোহাম্মদও মারা যান।

ওই দুই দিনে ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় দফায় দফায় বিমান হামলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। এসব হামলায় অন্তত ৩৪ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হয়। বিপরীতে মুক্তিকামী ফিলিস্তিনিদের নিক্ষেপ করা রকেটের আঘাতে আহত হন অন্তত ৬৩ ইসরায়েলি নাগরিক।

গাজা উপত্যকায় দখলদার ইসরায়েলি বাহিনীর বিমান হামলা বিনা জবাবে পার পাবে না বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস। হামাসের মুখপাত্র ফাউজি বারহুম এক বিবৃতিতে বলেছেন, দখলদার বাহিনী যে হামলা চালাচ্ছে সেটি স্পষ্ট আগ্রাসন। এর পরিণতি তাদেরকে ভোগ করতে হবে। হামাসের সামরিক শাখা আল-কাসসাম ব্রিগেড এখন অনেক বেশি অভিজ্ঞ। তারা জানে ইহুদিবাদীদের এই আগ্রাসনের জবাব কিভাবে দিতে হয়।

সূত্র: আল জাজিরা।