🕓 সংবাদ শিরোনাম

করোনায় বেসামাল ভারত, একদিনে আরও ৪০৯২ জনের মৃত্যুচীনা রকেটের সেই ধ্বংসাবশেষ আছড়ে পড়লো মালদ্বীপের কাছেঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কে চলছে দূরপাল্লার বাসশরীয়তপু‌রে কৃষিঋণ পেতে হয়রানি, ব্যাংকে দালাল চ‌ক্রের দৌরাত্ম্য চর‌মে!স্কটল্যান্ডের সংস‌দে প্রথম বাংলা‌দেশি এমপি নবীগঞ্জের ফয়ছল চৌধুরীসিলেটে চাহিদামতো ইফতারি না দেয়ায় অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে হত্যা!করোনাকালে কিন্ডারগার্টেন ও নন-এমপিও শিক্ষকদের করুণ দশা!ওয়ালটন স্মার্টফোনে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত ‘ঈদ সালামি’চাচীর পরকীয়ার কথা জেনে যাওয়ায় ভাতিজাকে নৃসংশ ভাবে খুনকেরাণীগঞ্জে দুই কিশোরীকে গণধর্ষণ, গ্রেপ্তার-৪

  • আজ রবিবার,২৬ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ৯ মে, ২০২১, সকাল ১১:৩৭

‘নুরসহ তিনজন রিলিজ পাচ্ছেন আজ, অন্যদের অবস্থা স্থিতিশীল’

❏ বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুরসহ তিনজনকে রিলিজ দেওয়া হচ্ছে বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর)। তাদের অবস্থা ভাল আছে। এদিন ফারুক ও নাজমুলকেও রিলিজ দেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরসহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি শিক্ষার্থীদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ভিপি নূর ভালো আছেন। বৃহস্পতিবার হঠাৎ তিনি বললেন যে তার কনুইয়ে ব্যথা। আমরা তার এক্সরে করেছি। রিপোর্ট ভালো আসলে আমরা তাকে আজই হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেবো। এছাড়াও নাজমুল ও ফারুককে আজ ছেড়ে দেওয়া হবে।

এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, চিকিৎসাধীন আটজনের মধ্যে কারোরই এমন কোনো অবস্থায় নেই যাকে আমরা বিপজ্জনক বলব।

এক প্রশ্নের জবাবে নাসির উদ্দিন বলেন, সোহেলকে আমরা পর্যবেক্ষণে রেখেছিলাম। অপা‌রেশ‌নের আগের দিন তার সিটি স্ক্যান করা হয়েছিল। তা‌তে আমরা কিছু সমস্যা পাই। যখন মনে হয়েছে, তার অপারেশন করা দরকার তখনই আমরা তার অপারেশন করি। তিনি বলেন, তার মাথায় প্রচণ্ড আঘাতের কারণে রক্তক্ষরণ হয়। যখন মনে করলাম, অপারেশন দরকার তখনই আমরা তাকে অপারেশন করলাম। তার অবস্থার উন্নতি হচ্ছে।

ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক বলেন, ‘ফারাবির কিছু সমস্যা ছিল, তার বিশ্রাম দরকার ছিল। কিন্তু হাসপাতালে অনেক মানুষ আসছে। তার নীরব পরিবেশ দরকার। তাই তাকে এইচডিইউতে রাখা হয়েছিল। শনিবার তাকে ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হয়।’

তিনি বলেন, ‘আমীনুর নামের আরেকজনের কিডনিতে সমস্যা ছিল। তিনি একজন নেফ্রোলজি বিভাগের অধীনে রয়েছেন। মেহেদী হাসান আছেন কার্ডিওলজি বিভাগে। নাজমুলের হাতে ব্যথ্যা ছিল, এক্সরে করা হবে। আরিফের চোখে সমস্যা ছিল, ব্লাড প্রেসার বেশি।’

হামলায় আহতদের চিকিৎসায় লুকোচুরি করা হচ্ছে এ অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে পরিচালক বলেন, ঢাকা মেডিক্যালের সবচাইতে বড় মেডিক্যাল বোর্ড এটাই। এত বিশেষজ্ঞরা এখানে রয়েছেন। আমরা আমাদের সর্বোচ্চ দিয়েছি।’