নুরদের ওপর হামলার ঘটনার প্রমাণ চেয়েছে তদন্ত কমিটি


❏ বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর, ঢাকা- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুর ও তার অনুসারীদের ওপর হামলাকে ‘অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা’ উল্লেখ করে কারও কাছে তথ্য ও প্রমাণ থাকলে তা লিখিত আকারে জমা দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে।

আগামী শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুর ২টার ভেতরে এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের গঠন করে দেওয়া তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক কলা অনুষদের ডিনের দফতরে সংরক্ষিত বাক্সে জমা দিতে বলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ ডিসেম্বর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জনসংযাগ দফতরের পরিচালক মাহমুদ আলম স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তদন্তের স্বার্থে তথ্য প্রদানকারীর নাম ঠিকানা গোপন রাখা হবে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, রবিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের ডাকসু ভবন এবং মধুর ক্যান্টিন এলাকায় সংঘটিত অনাকাঙ্খিত ঘটনা সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে রিপোর্ট দেওয়ার জন্য উপাচার্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী এবং ঘটনা সম্পর্কে তথ্য দিতে আগ্রহী ব্যক্তিদের প্রমাণসহ ঘটনার বিবরণ জমা দিতে অনুরোধ করা হলো।

ঘটনার বিবরণের সঙ্গে প্রমাণ দেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়ে আরও বলা হয়, আগামী ২৮ ডিসেম্বর বেলা ২টার মধ্যে লিখিতভাবে তথ্য প্রদানকারীর নাম, ঠিকানা এবং টেলিফোন নম্বরসহ তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক ও কলা অনুষদের ডিনের দপ্তরে সংরক্ষিত বক্সে তথ্য জমা দিতে হবে।

রোববার (২২ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাকসু ভবনে ডাকসু ভিপি নুরসহ তার অনুসারীদের ওপর হামলা চালানো হয়। ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের অভিযোগ, মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের ওপর হামলা চালিয়েছেন। এতে ভিপি নুরসহ তার অনুসারী বেশ কয়েকজন আহত হন।

এ ঘটনায় আহত ২৪ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। এর মধ্যে আট জনকে ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে তুহিন ফারাবিকে লাইফ সাপোর্টেও নেওয়া হয়। তবে এখন ভিপি নুরসহ বাকিদের শারীরিক অবস্থা শঙ্কামুক্ত বলে জানা গেছে।

সকালে ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, চিকিৎসাধীন আটজনের মধ্যে কারোরই এমন কোনো অবস্থায় নেই যাকে আমরা বিপজ্জনক বলব।

এদিকে নুরদের উপর হামলার ঘটনায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের তিনজনকে গ্রেফতার করে তাদের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ।