🕓 সংবাদ শিরোনাম

ফ্রান্সের জাতীয় দলে ফিরছেন ”বেনজেমা”কর্ণফুলী থানার পাশেই ছুরিকাঘাতে যুবক খুন সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা করায়  ‘মিডিয়া এডুকেটরস নেটওয়ার্ক’ এর প্রতিবাদসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে আমিরাতে সাংবাদিকদের প্রতিবাদ সভাকক্সবাজারে বিপুল সিগারেটসহ ৩ যুবক আটকরোজিনার সঙ্গে যারা অন্যায় করেছে, তাঁদের জেলে পাঠান: ডা. জাফরুল্লাহকেরানীগঞ্জে ফ্ল্যাট থেকে যুবতীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারপাটগ্রাম সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে নারী ও শিশুসহ ২৪জন আটকসাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়: ভিপি নুরসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন: হানিফ

  • আজ বুধবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৯ মে, ২০২১ ৷

'আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রে বিশ্বাসী'- কৃষিমন্ত্রী

razzak
❏ শনিবার, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৯ ঢাকা

মোল্লা তোফাজ্জল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কৃষি মন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সব সময় গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ নিরপেক্ষ হবে। বিএনপি নির্বাচনে আসবে এটা ভালো কথা। নির্বাচন সুষ্ঠ ও সুন্দর করতে বিএনপিকেও ভুমিকা রাখতে হবে।

শনিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের কুমুদিনী সরকারী কলেজের ৭৫ বছর পুর্তী উপলক্ষে আয়োজিত দুইদিন ব্যাপী পুর্নমিলনী অনুষ্ঠানের কর্মসুচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, ক্যান্টনমেন্টে আপনাদের জন্ম। নীল কুঠির, লাল কুঠির ষড়যন্ত্রকরে সেনাবাহিনীকে ব্যবহারসহ নানান রকম ক্ষমতার অপব্যাবহার করে আপনারা হ্যা, না ভোট করেছেন। আপনারা এদেশে মিডিয়া ঐক্য করে নির্বাচন করেছেন। আগামী সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অবশ্যই সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা: মুরাদ হাসান বলেন, দেশের পিছিয়ে থাকা নারী সমাজের উন্নয়নে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশের নেতৃত্ব এখন আমাদের মা বোনেরাই দিচ্ছেন।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন টাঙ্গাইল সদর-৫ আসনের এমপি মো. ছানোয়ার হোসেন, ভুয়াপুর-গোপালপুর-২ আসনের এমপি তানভীর হাসান ছোট মনির, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি মমতা হেনা লাভলী, টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান খান ফারুক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, পৌর মেয়র জামিলুর রহমান মিরন, কুমুদিনী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মো. আব্দুল মান্নান প্রমুখ। এ সময় কলেজের অন্যান্য শিক্ষক-শিক্ষিকা ও সাবেক ছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে শহরে কুমুদিনী সরকারি কলেজের সামনে থেকে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে পূণরায় কলেজে গিয়ে শেষ হয়। আলোচনা শেষে ৭৫ পাউন্ড কেক কাটেন অতিথিবৃন্দ।

উল্লেখ্য, দানবীর রণদাপ্রসাদ সাহা নারীশিক্ষা প্রসারের লক্ষ্যে ১৯৪৩ সালে টাঙ্গাইল শহরে মায়ের নামে কুমুদিনী কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। নারীদের জন্য ১৪ দশমিক ১৩ একর জমিতে প্রতিষ্ঠিত বৃহত্তর ময়মনসিংহের এই কলেজের যাত্রা শুরু হয়েছিল উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণি দিয়ে। পরে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শ্রেণি চালু হয়। ১৯৭৯ সালে কলেজটি সরকারি করা হয়। বর্তমানে কলেজে ১৬টি বিষয়ে স্নাতক (সম্মান) এবং ৮টি বিষয়ে স্নাতকোত্তর কোর্স চালু রয়েছে।