🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ রবিবার,২৬ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ৯ মে, ২০২১, বিকাল ৪:৩৪

হাড় কাঁপানো শীতে দিনাজপুরে জনজীবনে ছন্দপতন

❏ রবিবার, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৯ দেশের খবর, রংপুর

শাহ্ আলম শাহী, দিনাজপুর থেকে- হাড় কাঁপানো শীতে দিনাজপুরসহ উত্তরাঞ্চলে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা’র ছন্দপতন হয়েছে। ঘন কুয়াশা ও টানা মাঝারি শৈত্যপ্রবাহ এ শীতের তীব্রতা বাড়িয়েছে ভয়াবহ।

আজ রোববার দিনাজপুরে নিন্ম তাপমাত্রা ৬ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসের আদ্রতা ৯৭ শতাংশ। আর বৃহত্তর দিনাজপুরের পঞ্চগড় জেলার তেতুলিয়ায় রেকর্ড করা হয়েছে দেশের সর্বনিন্ম তাপমাত্রা ৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

দিনে মেঘলুপ্ত সূর্যের লুকোচুরি আর রাতে ঘন কুয়াশার সঙ্গে বইছে হিমেল হাওয়া। ঋতু বৈচিত্যের এই খেলা বেশ কিছুদিন ধরেই দেখছে উত্তরাঞ্চলের মানুষ। হিমেল হাওয়া আর ভয়াবহ শীতে কাঁপছে দিনাজপুরসহ উত্তরের জনপদ। বিপর্যন্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। বিশেষ করে ছিন্নমুল-হতদরিদ্র মানুষের অবস্থা চরম শোচনীয়। খড়কুটো জ্বালিয়ে শীত নিবারণের চেষ্টা করছেন তারা।

দিনাজপুরে আজ শনিবার দেশের সর্বনিন্ম তাপমাত্রা ৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। বাতাসের আদ্রতা ৯০ শতাংশ। ভূগৌলিক কারণে হিমালয়ের পাদদেশে অবস্থিত সীমান্ত জেলা দিনাজপুরসহ উত্তরাঞ্চলের কয়েক জেলায় এবার প্রকোপ আকার ধারণ করেছে শীত। তীব্র শীতে নাকাল জনজীবন। জবুথবু অবস্থা।

নিতান্ত প্রয়োজন ছাড়া ঘরের বাইরে বেরোচ্ছে না কেউ। প্রচন্ড শীতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে জনজীবন। ঘন কুয়াশার কারনে দিনের মধ্যেও দিনাজপুরের বিভিন্ন মহাসড়কে হেডলাইট জ্বালিয়ে চলাচল করেছে যানবাহন। শীতে রেল লাইন ও বস্তি এলাকার ’মানুষের দুর্ভোগ চরম আকার ধারণ করেছে। সবচেয়ে বেশী প্রভাব পড়েছে বৃদ্ধ ও শিশুদের মধ্যে। একইসাথে দেখা দিয়েছে শীতজনিত নানা রোগ। ডায়রিয়া, আমাশয়সহ নানা শীতজনিত রোগে কাহিল হয়ে পড়েছে শিশু ও বৃদ্ধরা। দেখা দিয়েছে, নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট ও হাঁপানি।

দিনাজপুর জেলা সার্জন ডা. আব্দুল কুদ্দুস জানিয়েছেন, যে সকল শিশু ও বৃদ্ধ মানুষ শ্বাসকষ্টজনিত এবং ডায়রিয়া রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তাদের চিকিৎসা চলছে। জেলার ১৩ উপজেলার উপস্বাস্থ্য কেন্দ্র ও সদর হাসপাতালে পর্যাপ্ত ওষুধ রয়েছে। সবকিছু আমাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

আর দু’তিনদিন পর আগামী বছরের শুরুতে তাপমাত্রা আরো কমবে বলে জানিয়েছে দিনাজপুর আবহাওয়া অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তোফজ্জল হোসেন।