🕓 সংবাদ শিরোনাম

রোজিনার সঙ্গে যারা অন্যায় করেছে, তাঁদের জেলে পাঠান: ডা. জাফরুল্লাহকেরানীগঞ্জে ফ্ল্যাট থেকে যুবতীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধারপাটগ্রাম সীমান্তে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশের দায়ে নারী ও শিশুসহ ২৪জন আটকসাংবাদিকদের ভয় দেখিয়ে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করতে চায়: ভিপি নুরসাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা নয়, দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন: হানিফআর এমন ভুল হবে না: নোবেলস্বেচ্ছায় কারাবরণের আবেদন নিয়ে থানায় অনুসন্ধানী সাংবাদিকেরাইসরায়েলি আগ্রাসনের প্রতিবাদে রাস্তায় ঢাবি শিক্ষক সমিতিযমুনা নদীতে ডুবে তিন কলেজ ছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু‘বাংলাদেশে সাংবাদিকতাকে তথ্য চুরি বলা হচ্ছে, এর চেয়ে দুঃখ আর নেই’

  • আজ বুধবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৯ মে, ২০২১ ৷

আমি কি ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হব? মজা করে প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন

moja
❏ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেনের কাছ থেকে নতুন বই নেয়ার সময় মজা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমি কি ৬ষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হব?

মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল ১০টার দিকে গণভবনে তার কাছে ফলাফল হস্তান্তরের পর এসব কথা বলেন তিনি।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণিতে এই দু’টি পরীক্ষা শিশুদের মাঝে আত্মবিশ্বাস বাড়াচ্ছে। এর ফলে এসএসসি পরীক্ষার ভীতি কাটছে। প্রাথমিক পরীক্ষার একটা সার্টিফিকেট পাচ্ছে, আবার অষ্টম শ্রেণি পাস করার পর আরেকটা পাচ্ছে, এতে কি হচ্ছে তাদের মধ্যে পরীক্ষার ভীতি কাটছে। যেকোনো সার্টিফিকেট বাঁধায়ে রাখলে নিজের মনের মধ্যে একটা সাহস জাগে। ফলে এসএসসি পরীক্ষার সময় যে ভয়টা থাকে সেটা কাটিয়ে ওঠা যায়।

নিজের এসএসসি পরীক্ষার অজ্ঞিতার কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি যখন নিজে এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছিলাম তখন ভয় পেয়েছিলাম। বোর্ড পরীক্ষা প্রথম কি হবে না হবে। এখনকার বাচ্চাদের সে ভয় লাগে না। কারণ আগে থেকে এসব পরীক্ষা দিয়ে তাদের মধ্যে আত্মবিশ্বাস জেগেছে।

তিনি আরও বলেন, আগে পুরনো ছেঁড়া জীর্ণ বই হাতে দেয়া হতো, অনেকের আবার বই কেনার ক্ষমতা ছিল না বাবা মার, বা কিনতে পারত না, এখন আর সেটা নেই। সকলের জন্য নতুন বই। আসলে নতুন বই হাতে পেলে ভালোও লাগে শিশুদের তাকিয়ে এ কথা বলেন। সরকারপ্রধান হেসে হেসে বলেন, নতুন বইয়ের ঘ্রান পেতে ভালো লাগে, আবার নতুন বইয়ে মলাট লাগাতে হবে, নামটা লিখতে হবে অনেক কাজ থাকবে। সেই কাজগুলো সকলে মিলে করা হবে তাই না।

এরপর একে একে প্রাক প্রাথমিক থেকে শুরু করে মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন সরকারপ্রধান। তিনি বলেন, শিক্ষার আধুনিকায়নে কাজ করে যাচ্ছে তার সরকার। ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের নতুন বছর এবং বই উৎসবের শুভেচ্ছা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নতুন বই শিক্ষার্থীদের বছরের শুরু থেকেই পড়ালেখায় আগ্রহী করে তোলে।

শিশুদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী তাদের নিয়ে গণভবনের মাঠে যান। এ সময় শিশুরা দুরন্ত গতিতে মাঠে প্রবেশ করে। পরে প্রধানমন্ত্রীও শিশুদের সাথে মাঠে যান ও তাদের সাথে খেলায় মেতে উঠেন।