🕓 সংবাদ শিরোনাম

সাংবাদিক রোজিনাকে হয়রানি ও হেনস্থার প্রতিবাদে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের মানববন্ধনসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতনের প্রতিবাদে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের মানববন্ধনঝালকাঠিতে জমি নিয়ে বিরোধে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা,আটক-২মাত্র ২০ ঘন্টায় ১০ লক্ষ দর্শক পেল“ তাকে ভালোবাসা বলে” নাটকটিবিয়ের কথা বলে প্রেমিকাকে তুলে নিয়ে রাতভর ধর্ষণভারতে করোনায় একদিনে মারা গেলেন ৫০ চিকিৎসকদেশে বিশেষ অভিযান চালাবে ইন্টারপোলসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নেওয়া হলো আদালতেতুমুল সমালোচনার মুখে ‘জেরুজালেম প্রেয়ার টিম’পেজ সরিয়ে নিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষইসরাইলকে সমর্থন দিয়েছে বিশ্বের ২৫টির মতো দেশ!

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

'বাংলাদেশিদের রেকর্ডসংখ্যক ভিসা দিয়ে খুশি ভারত'- রিভা গাঙ্গুলি

bbb
❏ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯ ঢাকা

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাশ বলেছেন, ২০১৯ সালে বাংলাদেশিদের ১৫ লাখ ভিসা প্রদান করা হয়েছে। এত সংখ্যক ভিসা বিশ্বের কোথাও দেয়া হয়নি। এ জন্য ভারত সরকার তথা আমরা খুবই খুশি।

মঙ্গলবার দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্কে ভারতীয় ভিসা সেন্টারে এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা জানান। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের তিন মুক্তিযোদ্ধার হাতে পাঁচ বছরের ভারতের মাল্টিপল ভিসা তুলে দেন হাইকমিশনার। আগামীতে বাংলাদেশিদের ভারতীয় ভিসা প্রদান আরও বাড়বে- এমনটাই জানালেন ঢাকায় নিযুক্ত দেশটির হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলি দাশ।

মাল্টিপল ভিসাপ্রাপ্ত তিনজন হলেন- বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম, বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. নূর মোহাম্মদ মল্লিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান।

রিভা গাঙ্গুলি দাশ বলেন, যমুনা ফিচার পার্কে ভারতীয় ভিসা সেন্টারটি পৃথিবীর সর্ববৃহৎ ভিসা সেন্টার। বাংলাদেশে এ ভিসা সেন্টারটিসহ মোট ১৫টি ভিসা সেন্টার খোলা রয়েছে। এর মধ্যে ২০১৯ সালে ৯টি ভিসা সেন্টার চালু করা হয়েছে। ভিসা প্রাপ্তদের সুর্বিধার্থে দেশের বিভিন্ন স্থানে এ ভিসা সেন্টারগুলো খোলা হয়েছে। যে যেখানেই থাকুক, খুব সহজেই ভারতীয় ভিসার জন্য আবেদন করতে পারছে। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ভারতীয় ভিসা প্রদান করা হচ্ছে। আমরা এর সুফলও পাচ্ছি। মাত্র কয়েক বছর আগেও বছরে ৭ থেকে ৮ লাখ ভিসা প্রদান করা হতো। এখন তা ১৫ লাখে পৌঁছেছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আবেদন কেন্দ্রের সংখ্যা বেশি এবং ভিসা প্রক্রিয়া খুবই সহজ করা হয়েছে। আর এ জন্য ভিসা জমা এবং দেয়ার সংখ্যা বাড়ছে। আমরা খুবই খুশি, ভিসা প্রক্রিয়া এতই সহজ করা হয়েছে যে, আজকাল আমাদের ভিসা নিয়ে বলতেই হয় না। ভিসা খুবই সহজে ইস্যু করা হচ্ছে। আমরা চাইব যে, লোকেরা আরও বড় সংখ্যক ভারতে যাক, আমাদের যাতায়াত বাড়ুক।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় হাইকমিশনের ডেপুটি হাইকমিশনার বিশ্ব দ্বীপ দে, দ্বিতীয় সচিব (ভিসা ও কনস্যুলার) বিশাল জ্যোতি দাশ, কর্মকর্তা (অ্যাটাশে প্রেস অ্যান্ড ইনফরমেশন) দেবব্রত পাল।