খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে নিজেই স্লোগান দিলেন মির্জা ফখরুল

❏ বুধবার, জানুয়ারী ১, ২০২০ জাতীয়

রবিউল ইসলাম, সময়ের কণ্ঠস্বর- বিএনপি চেয়ারপারসন কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে নিজেই স্লোগান দিলেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে তিনি বলেন, “মুক্তি চাই, মুক্তি চাই স্লোগানটি পরিবর্তন করতে চাই। এখন থেকে মুক্ত করো, মুক্ত করো, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করো বলতে হবে।” এসময় মির্জা ফখরুল নিজেই স্লোগান দেওয়া শুরু করেন।

বুধবার (০১ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউটে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ৪১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ছাত্র সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

এদিন ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রকে বাঁচানোর জন্য দেশের মানুষ এখন পরিবর্তন চায়। এসো ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমরা সবাই জেগে উঠি, নিজেরা মুক্তি হই এবং খালেদা জিয়াকে মুক্ত করি।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের প্রয়োজনে, স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষার প্রয়োজনে ছাত্রদের উঠে দাঁড়াতে হবে। এখন থেকে কেউ আঘাত করলে প্রতিরোধ করতে দাঁড়াতে হবে। কারণ প্রতিরোধ ছাড়া কখনো বিজয় অর্জন করা সম্ভব হয় না।

অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, ২০১৪ সালে আমরা যখন নির্বাচনে যাইনি তখন বলা হয়েছে আমরা ভুল করেছি। ২০১৪ সালে নির্বাচনে না যেয়ে ভুল করিনি তা প্রমাণ করতে ২০১৮ সালে নির্বাচনে গিয়েছিলাম। আওয়ামী লীগের অধীনে যে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না তা প্রমাণ করতেই নির্বাচনে গিয়েছি।

“আজকে আরেকটি প্রশ্ন আসছে আপনারা তাহলে মেয়র নির্বাচনে কেন গেলেন। ওই একই কথা বলতে চাই, আওয়ামী লীগের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না। সেটি বারবার প্রমাণ করার জন্যই আমরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি।”

মির্জা ফখরুল বলেন, আমি বারবার বলতে চাই যে এই ইসিকে সরাতে হবে, এই সরকারকে সরাতে হবে। একটা নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায় নির্বাচন করতে হবে।

তিনি বলেন, আজকে এ সরকারের নেতারা লম্বা লম্বা কথা বলেন। তারা বন্দুক দিয়ে, পিস্তল দিয়ে, গায়ের জোরে ক্ষমতায় বসে আছে। তারা তো জনগণের সরকার না। জনগণ তাদের ভোট দেয়নি। আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি, রাস্তার মধ্যে ১০০ জনকে জিজ্ঞেস করেন ৯০ জন বলবে এ সরকারকে আমরা চাই না।

সমাবেশে ছাত্রদল সভাপতি ফজলুর রহমান খোকনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামলের সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু প্রমুখ।