বাড়িতে শিক্ষক রেখে বাংলা শিখছেন অমিত শাহ!

omit
❏ বৃহস্পতিবার, জানুয়ারী ২, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ সালে বিধানসভা নির্বাচন। আর এই নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে রয়েছে গোটা রাজ্য। আসন্ন নির্বাচনকেই পাখির চোখ করেছে বিজেপি। আর এখন থেকেই তার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

ভারতের সংবাদ মাধ্যমগুলো বলছে, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবার বাংলা ভাষা শিখছেন। পশ্চিমবঙ্গ দখল করার জন্যই অমিতের এই বাংলা শেখার তোড়জোর। কারণ সেখানকার মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করতে হলে বাংলা জানা খুব জরুরি বলে মনে করছেন তিনি। ভোট পূর্ববর্তী প্রচারে ভাষার যাতে কোনোভাবেই বাধা না হয়ে দাঁড়ায় সেজন্য বাংলা শিখছেন অমিত শাহ। বাড়িতে শিক্ষক রেখে বাংলা শিখছেন তিনি।

অমিত শাহ গুজরাটি হলেও তার জন্ম মুম্বাইয়ে। গুজরাটির পাশাপাশি তিনি হিন্দি বলতে পারেন। কিন্তু বাংলা বলতে পারেন না।আগামী ২০২১ সালের এপ্রিল-মে মাসে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য বিধানসভার নির্বাচন। এর আগেই তিনি বাংলাটা শিখে নিতে চান।

দফতর ও দলের কাজ সামল দিয়েও অমিত শাহ এখন নিয়মিত সময় বের করে বাংলা শিখছেন। শুধু তাই নয়, বাংলা বলা এবং বোঝার জন্য তিনি একজন শিক্ষকও রেখেছেন। বাংলায় পারদর্শী একজনকে মাস্টারমশাই হিসেবে নিয়োগ করেছেন এই কট্টর হিন্দুত্ববাদী নেতা।

অমিত শাহের বাংলা শেখার খবর শুনে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি নেতারা বলছেন, ওনার বাংলা শেখার কোনো দরকার নেই। কারণ এখানকার বাঙালি নেতারা ভালো করেই হিন্দি বুঝতে পারেন।

পশ্চিমবঙ্গে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল ক্ষমতায়। শুরু থেকেই বিভিন্ন ইস্যুতে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলে আসছেন মমতা। এ কারণে মোদি-অমিত জুটি চান পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি সরকার বসাতে। সে পরিকল্পনায় কিছুটা হলেও এগিয়েছেন তারা। কারণ গত নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির আসন বেড়েছে, কমেছে বাম ও তৃণমূলের আসন। মোদি-অমিত শাহ চান গোটা পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির দখলে নিতে। আর সে কারণেই বাংলা শেখাসহ সব ধরনের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন তারা।