ফাহাদ হত্যা: পলাতক ৪ আসামিকে ধরতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেয়ার নির্দেশ

fahad
❏ রবিবার, জানুয়ারী ৫, ২০২০ আলোচিত বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার পলাতক চার আসা‌মিকে হা‌জি‌র করতে প‌ত্রিকায় বিজ্ঞ‌প্তি প্রকা‌শের নি‌র্দেশ দি‌য়ে‌ছেন আদালত। একই সঙ্গে এ বিষ‌য়ে প্র‌তি‌বেদন দা‌খিলের জন্য আগামী ১৩ জানুয়া‌রি দিন ধার্য করা হ‌য়ে‌ছে।

রোববার (৫ জানুয়ারি) সকালে অতিরিক্ত মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম এ আদেশ দেন। গত ৩ ডিসেম্বর আসামি মোর্শেদুজ্জামান জিসান, এহতেশামুল রাব্বি তানিম, মোর্শেদ অমর্ত্য ইসলাম ও মোস্তবা রাফিদের সম্পদ বাজেয়াপ্তের নির্দেশ দেন আদালত। এর আগে ১৮ নভেম্বর এদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

১৩ নভেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করা হয়। অভিযুক্ত ২৫ জনের মধ্যে এজাহারভূক্ত ১৯ জন এবং এজাহার বহির্ভূত ৬ জন। বর্তমানে ২১ আসামি কারাগারে আছে। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে ৮ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

পলাতক আসামিরা হলেন- মোর্শেদুজ্জামান জিসান, এহতেশামুল রাব্বি তানিম, মোর্শেদ অমত্য ইসলাম ও মোস্তফা রাফিদ (এজাহারবহির্ভূত)

প্রসঙ্গত, গত ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে বাংলা হলে আবরারকে তার কক্ষ থেকে ডেকে নিয়ে যায় বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। তারা ২০১১ নম্বর কক্ষে নিয়ে গিয়ে তাকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে রাত তিনটার দিকে শেরে বাংলা হলের সিঁড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় গত ৭ অক্টোবর রাজধানীর চকবাজার থানায় আবরারের বাবা বরকতউল্লাহ বাদী হয়ে ১৯ জনকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। এ মামলার সব আসামি বর্তমানে কারাগারে আছে।

তদন্তে নেমে পুলিশ এজাহারের ১৬ জনসহ মোট ২১ জনকে গ্রেফতার করে। এদের মধ্যে আট জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে, যাদের সবাই বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

আবরার বুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষে থাকতেন।