🕓 সংবাদ শিরোনাম

সাংবাদিক রোজিনাকে হয়রানি ও হেনস্থার প্রতিবাদে রাঙামাটি প্রেসক্লাবের মানববন্ধনসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নির্যাতনের প্রতিবাদে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের মানববন্ধনঝালকাঠিতে জমি নিয়ে বিরোধে কৃষককে কুপিয়ে হত্যা,আটক-২মাত্র ২০ ঘন্টায় ১০ লক্ষ দর্শক পেল“ তাকে ভালোবাসা বলে” নাটকটিবিয়ের কথা বলে প্রেমিকাকে তুলে নিয়ে রাতভর ধর্ষণভারতে করোনায় একদিনে মারা গেলেন ৫০ চিকিৎসকদেশে বিশেষ অভিযান চালাবে ইন্টারপোলসাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে নেওয়া হলো আদালতেতুমুল সমালোচনার মুখে ‘জেরুজালেম প্রেয়ার টিম’পেজ সরিয়ে নিল ফেসবুক কর্তৃপক্ষইসরাইলকে সমর্থন দিয়েছে বিশ্বের ২৫টির মতো দেশ!

  • আজ মঙ্গলবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৮ মে, ২০২১ ৷

পরমাণু চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা ইরানের


❏ সোমবার, জানুয়ারী ৬, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- ইরানির প্রভাবশালী জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার পর মধ্যপ্রাচ্যে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। ইতিমধ্যে ইরান পরমাণু চুক্তি থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে।

দেশটির শীর্ষ কমান্ডারকে যুক্তরাষ্ট্র হত্যা করার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া হিসেবে রোববার এ ঘোষণা দেয়া হলো। এদিকে ইরাকের পার্লামেন্ট সেদেশ থেকে মার্কিন সৈন্য সরিয়ে দিতে সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে শুক্রবার ইরাকের রাজধানী বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের ড্রোন হামলায় ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাশেম সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়। এ প্রেক্ষাপটে রোববার রাতে ইরান সরকারের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি অনুযায়ী ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের সীমাবদ্ধতা তারা আর মানবে না

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, এখন থেকে ইরানের পরমাণু কর্মসূচি কেবলমাত্র তার কারিগরী প্রয়োজনীয়তার ওপর ভিত্তি করে চলবে। ইরান বলছে, তারা ইউরেনিয়ম সমৃদ্ধকরণের সক্ষমতা ও পরিমাণ বাড়াবে এবং সমৃদ্ধকরণ ও অন্যান্য গবেষণা অব্যাহত রাখবে। জাতিসংঘের স্থায়ী পাঁচ সদস্য দেশ ব্রিটেন, চীন, ফ্রান্স, রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র এবং জার্মানীকে অন্তর্ভূক্ত করে ২০১৫ সালে ইরানের সাথে পরমাণু চুক্তি সম্পন্ন করা হয়। চুক্তিতে ইরানকে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মাত্রা নির্দিষ্ট করে দেয়া হয়। কিন্তু দু’বছর আগে যুক্তরাষ্ট্র একতরফা চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেলে এটি ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যায়।

এর আগেও ইরান চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছিল। এ প্রেক্ষাপটে ইউরোপীয় দেশগুলো চুক্তি রক্ষায় তেহরানের সাথে আলোচনাকে প্রাধান্য দিয়ে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফকে ব্রাসেলসে বৈঠকের আমন্ত্রণ জানিয়েছিল। কিন্তু ইরান সরকারের সর্বশেষ এই বিবৃতিতে সে সম্ভাবনা পুরোপুরি ধূলিস্যাৎ হয়ে গেছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। তবে তেহরান বলেছে, তারা আগের মতোই আন্তর্জাতিক পরমাণু শক্তি সংস্থাকে সহযোগিতা করে যাবে।