🕓 সংবাদ শিরোনাম
  • আজ রবিবার, ২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ ৷ ১৬ মে, ২০২১ ৷

সামরিক ঘাঁটিতে আল-শাবাবের হামলা: আমেরিকান সেনাসহ নিহত ৩


❏ সোমবার, জানুয়ারী ৬, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ কেনিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক ঘাঁটিতে হামলায় অন্তত ৩ জন মার্কিনী নিহত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজন মার্কিন সেনা এবং অপর দুইজন ঠিকাদার ছিলেন। রবিবার কেনিয়ার লামুতে মার্কিন সেনা ঘাঁটিতে এই হামলা চালায় আল শাবাব নামের উগ্রবাদী গোষ্ঠী।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছে মার্কিন সেনাবাহিনীর আফ্রিকান কমান্ড। তারা জানিয়েছে, সোমালিয়া সীমান্তে কেনিয়ার লামু কাউন্টির মান্দা বে ঘাঁটিতে ওই হামলায় আরও দুই আমেরিকান আহত হয়েছেন।

এক বিবৃতিতে আফ্রিকান কমান্ড জানায়, আহত আমেরিকানদের অবস্থা স্থিতিশীল। তাদের ওই ঘাঁটি থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।

গতকাল এক বিবৃতিতে আল শাবাব জানায়, মুজাহিদীন যোদ্ধারা শত্রুদের ঘাঁটিতে প্রবেশ করে সফলভাবে হামলা চালিয়েছে এবং ওই ঘাঁটির একটি অংশ দখলে নিয়েছে।

তবে কেনিয়ার সামরিক বাহিনী বলেছে, হামলাকারীদের হামলা নস্যাৎ করে দেয়া হয়েছে এবং এতে ৫ জন হামলাকারী নিহত হয়েছে।

এছাড়া আরও ৫ হামলাকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কেনিয়ার পুলিশ কর্মকর্তারা।

শুক্রবার মার্কিন হামলায় ইরানি কমান্ডার কাসেম সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর উদ্ভূত পরিস্থিতির পর আল-শাবাবের এই হামলা পেন্টাগনকে নতুন সংকটে ফেলে দিয়েছে।

সোমালি সরকারের পতন ঘটাতে গত এক দশক ধরে লড়াই করে আসছে আল-শাবাব। প্রত্যক্ষদর্শী ও সামরিক সূত্র জানিয়েছে, রোববার ভোরের ওই হামলা প্রায় চারঘণ্টা স্থায়ী হয়েছিল।

মার্কিন আর্মি জেনারেল স্টিফেন টাউনসেন্ড বলেন, আমাদের আফ্রিকান ও আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সঙ্গে মিলে হামলায় দায়ীদের তাড়া দেব।

আল শাবাব বলছে, ‘আল-কুদস (জেরুজালেম) কখনোই ইহুদিবাদে রূপান্তরিত হবে না’– প্রচারের অংশ হিসেবে তারা এই হামলা চালিয়েছে।

গত বছরের জানুয়ারিতে নাইরোবির অভিজাত ডুস্টি হোটেল কমপ্লেক্সে হামলার সময় প্রথম তারা এই পরিভাষাটি ব্যবহার করেন। ওই হামলায় ২১ জন নিহত হয়েছিলেন।

২০১১ সালে সোমালিয়ায় সেনা পাঠানোর প্রতিশোধ নিতে কেনিয়ায় বেশ কয়েকটি বড় ধরনের হামলা চালিয়েছে আল-শাবাব।