‘ধর্ষণের বিচারে আইনি ফাঁকফোকর দূর করতে হবে’- ঢাবি উপাচার্য

১২:৫৫ অপরাহ্ন | বুধবার, জানুয়ারী ৮, ২০২০ শিক্ষাঙ্গন
duuuuuu

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের চিহ্নিত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে পুলিশকে আহ্বান জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

তিনি বলেন, ‘আমরা লজ্জিত, মর্মাহত যে, আমাদের একটি মেয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ধর্ষকের প্রতি আমরা তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা সবাই সংক্ষুব্ধ। সবাই ধর্ষকের শাস্তির দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন। উদ্দেশ্য একটাই, ধর্ষকের দ্রুততম ও সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা।’

রাজধানীর কুর্মিটোলায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষকের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি এ মানববন্ধনের আয়োজন করে।

আখতারুজ্জামান বলেন, ‘আমরা চাই এই নরপিচাশের যেন দ্রুত শাস্তি নিশ্চিত করা যায়। আমাদের দাবি হবে, সরকারের আইনি কাঠামোতে যদি কোন ফাঁক-ফোকর থেকে থাকে, তাহলে তা যেন দূর করা হয়। এ ধরনের ঘটন যেন আর না হয়। এই ঘটনা যেন শেষ ঘটনা হয়। আর কোন মেয়ে যেন ধর্ষণের শিকার না হয়।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি আয়োজিত মানববন্ধনে শতাধিক শিক্ষক উপস্থিত ছিলেন। ব্যানারে লেখা ছিলো, ‘আমাদের সন্তানতুল্য ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন।’

পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ওই ছাত্রীকে দেখে সাংবাদিকদেরকে ঢাবি উপাচার্য বলেন, ‘মেয়েটি আগের চেয়ে ভালো আছে। মানসিকভাবে শক্ত ও সুস্থ্য হয়ে উঠছে ধীরে ধীরে। তার সাথে কথা হয়েছে।’

এসময় ধর্ষকের গ্রেপ্তারে স্বস্তি প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘এই ঘটনাই যেন শেষ ঘটনা হয়। তাকে দ্রুততম সময়ে গ্রেপ্তার করায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’ এসময় ওই ছাত্রী পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় ইতিমধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। পরে ধর্ষকের ছবি ভুক্তভোগী ওই ছাত্রীকে দেখানোর পর তিনি সনাক্ত করেছেন। মঙ্গলবার রাতে অভিযানের পর তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।