দিনাজপুরে দুদকের জালে পৌনে দুই কোটি টাকাসহ আটক পিআইও জেল হাজতে

❏ শুক্রবার, জানুয়ারী ১০, ২০২০ রংপুর

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর থেকে :: প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকাসহ দুদকের জালে আটক দিনাজপুরের পাবর্তীপুর উপজেলা ত্রাণ ও প্রকল্প বাস্তবায়ক কর্মকর্তা-পিআইও মো. তাজুল ইসলামকে আদালতের মাধ্যমে আজ শুক্রবার জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

প্রকল্প দূর্নীতির এককোটি ৮৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা ভাগবাটোয়ারার সময় পার্বতীপুর উপজেলা ত্রান ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তাজুল ইসলাম বৃহস্পতিবার সন্ধায় দিনাজপুর দূর্নীতি দমন কমিশন-দুদকের জালে ধরা পড়ে।

দূর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দিনাজপুরের সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমানের নেতৃত্বে একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটসহ ৭ কর্মকর্তা এ অভিযানে অংশ নেয়।

গ্রেফতার অভিযানে অংশগ্রহনকারী অন্যান্যরা হলেন,দিনাজপুর এর নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ দবির উদ্দিন, দুদক দিনাজপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক জিন্নাতুল ইসলাম, সহকারী পরিদর্শক ওবায়েদুর রহমান, সহকারী পরিদর্শক আব্দুল আজিজ, উচ্চমান সহকারী শাহাজাহান আলী ও এএসআই সামসুল ইসলাম।

অভিযানের নেতৃত্বদানকারী সহকারী পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান জানান, মোবাইল ফোনে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা বৃহস্পতিবার সন্ধা ৬টায় পার্বতীপুর উপজেলা ত্রান ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার(পিআইও) তাজুল ইসলামের কার্যালয়ে অভিযান চালানো হয়। এসময় তাজুল ইসলাম তার অফিসে বিপুল পরিমান টাকা গননা ও টাকাসমুহ বিভিন্ন ভাগে স্তুপ করে রাখার কাজ করছিল।তার কাছে থাকা টাকাসহ অফিস কক্ষের আলমিরাসহ টেবিলের ড্রয়ার তল্লাশী করে এককোটি ৮৫ লাখ ২৫ হাজার টাকা পওয়া যায়।

দুদকের জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত পিআইও তাজুল ইসলাম বিভিন্ন প্রকল্প থেকে ঘুষ বা কমিশন হিসেবে এসব টাকা পেয়েছেন বলে স্বীকার করেছেন। তবে,কোন কোন ব্যক্তি বিশেষের কাছ থেকে এসব টাকা পেয়েছেন জানতে চাইলে তিনি (তাজুল ইসলাম) এ ব্যাপারে মুখ খুলতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন।

দুদক জানিয়েছেন ঘুষ প্রদানকারী ব্যক্তিসহ দূর্নীতিগ্রস্থ প্রকল্পসমুহকেও চিহ্নিত করার কাজ করছে দুদক।

তাজুল ইসলামকে অন্তবর্তীকালীন সময়ে দিনাজপুর জেলা পুলিশের বিশেষ হেফাজতে রেখে আজ শুক্রবার আদালতের মাধ্যমে জেল-হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।