• আজ রবিবার,২৬ বৈশাখ, ১৪২৮ ৷ ৯ মে, ২০২১, সকাল ৮:৩০

‘বিশ্বের সবচেয়ে নিরাপদ স্থান পাকিস্তান’- গেইল

❏ শুক্রবার, জানুয়ারী ১০, ২০২০ খেলা
pak

স্পোর্টস আপডেট ডেস্কঃ সন্ত্রাসবাদের জেরে দীর্ঘদিন ধরে ঘরের মাঠে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন করতে পারেনি পাকিস্তান। ২০০৮ সালের পর থেকেই পাকিস্তান সফর থেকে বিরত রয়েছে অধিকাংশ ক্রিকেট খেলুড়ে দেশ। শ্রীলঙ্কাই কেবল দুইবার সফর করেছে।

২০১৮ সালের এপ্রিলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ করাচিতে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেছে। ওই দলে ছিলেন না ওপেনার ক্রিস গেইল। অনেকটা খর্বশক্তির দলই পাঠিয়েছিলো ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট বোর্ড। ২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কা দলের ওপর জঙ্গী হামলার পর নিজে কখনও পাকিস্তানে যাননি। অথচ সেই পাকিস্তান এখন গেইলের চোখে নিরাপদ।

বৃহস্পতিবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সংবাদমাধ্যমকে গেইল বলেছেন, ‘পাকিস্তান এই মুহূর্তে বিশ্বের অন্যতম নিরাপদ জায়গা। তারা (পাকিস্তান) বলছে আপনাদের প্রেসিডেন্ট পর্যায়ের নিরাপত্তা দেবে, তাই আপনি খুবই ভালো থাকবেন। আমি বলতে চাইছি বাংলাদেশে যেভাবে আছি, ওভাবে পাকিস্তানেও থাকা সম্ভব।’

২০০৯ সালে লাহোরে সফররত শ্রীলংকা ক্রিকেট দলের বাস লক্ষ্য করে বোমা ছুড়ে জঙ্গিরা। ওই ঘটনার পর পাকিস্তান থেকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট নির্বাসনে যায়। এসময়ে সেখানে ক্রিকেট খেলতে যায়নি টেস্ট খেলুড়ে দলগুলো।

অবশেষে ২০১৯ সালে পাকিস্তানে ফের গড়িয়েছে ক্রিকেট। সন্ত্রাস কবলিত দেশটিতে ক্রিকেট খেলতে যায় সেই শ্রীলংকা। সেখানে টি-টোয়েন্টি, ওয়ানডের পর টেস্ট খেলে এসেছে লংকানরা।

নির্বিঘ্নে সেই সিরিজগুলো আয়োজন করার পর রীতিমতো হুংকার ছুড়েছে পাক ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। তারা জানিয়েছে, পাকিস্তানের বিপক্ষে খেললে তাদের মাটিতে এসে খেলতে হবে। চলতি মাসেই সেখানে যাওয়ার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু সেই সফর আদৌ হবে কি না, তা নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছে। নিজেদের ক্রিকেটারদের পাকিস্তানে পাঠানোর ক্ষেত্রে বিস্তর ভাবনা-চিন্তা করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

এর মধ্যে বাংলাদেশে দাঁড়িয়ে গেইলের মুখ থেকে পাকিস্তানের প্রশংসা কোন ইঙ্গিত বহন করছে, তা নিয়ে তৈরি হয়েছে জল্পনা। বঙ্গবন্ধু বিপিএলে অংশ নিতে এখনঢাকায় আছেন তিনি।