মুন্সীগঞ্জে নিখোঁজের ৪ দিন পর প্রকৌশলীর লাশ উদ্ধার


❏ শুক্রবার, জানুয়ারী ১০, ২০২০ ঢাকা

মোঃ রুবেল ইসলাম তাহমিদ, মুন্সীগঞ্জ থেকে :: নারায়নগঞ্জের ফতুল্লা থানার বক্তাবলী এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে ট্রলার থেকে পড়ে গিয়ে নিখোঁজ হন মেহদী হাসান জিসান (৩৫) ও লিখন (৩২) নাম দুই প্রকৌশলী।

নিখোঁজের ৪ দিন পর ১০ জানুয়ারি শুক্রবার দুপুর ৩টার দিকে উপজেলার সিরাজদিখান লতব্দী -ইউনিয়নের কাছে ধলেশ্বরী নদীতে প্রকৌশলী মেহদী হাসান এর লাশ ভেসে উঠলেও লিখন নামের আরোও একজন প্রকৌশলী এখনও নিখোঁজ রয়েছে। নিহত মেহদী হাসান রাজশাহী জেলার বোয়লমারী থানার গোরহাঙ্গা গ্রামের মত মোখলেছুর রহমানের ছেলে। নিখোঁজ লিখনের বাড়ী ফরিদপুর ।

পুলিশ ও নিখোঁজের স্বজনেরা জানান, মেহদী হাসান ও লিখন সাভার জেলার আশুলিয়া থানায় ‘বাংলা ক্যাট’ নামের একটি বেকু কোম্পনীতে চাকরী করতেন সেই সুবাধে গত ৬ ই জানুয়ারী নারানগঞ্জ জেলার ফতুল্লার বক্তাবলীত কোম্পনীর কাজ শেষ করে ভোর সাড় ৫ টায় ট্রলার যোগে বুড়িগঙ্গা নদী পার হতে গিয়ে লঞ্চের সাথে ট্রলারের ধাক্কা লাগলে দুজনই নদীতে পরে গিয়ে নিখোঁজ হন।

নিখোঁজের ৪ দিন পর মেহদীর লাশ শুক্রবার সিরাজদিখান উপজেলার পুরান ভাষানচর এলাকায় ধলেশ্বরী নদীতে ভেসে উঠে। পুলিশ খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে বিকেল ৫টায় নিহতের স্বজনরা লাশ শনাক্ত করেন। সিরাজদিখান থানার ওসি মো.ফরিদ উদ্দিন জানান,নিখোঁজ প্রকৌশলী মেহদী হাসান জিসানের লাশ শনাক্ত করে। ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।