‘বিসিএস ক্যাডার চয়েজে ভালো উদ্দেশ্য থাকে না’- দুদক কমিশনার

১০:০৩ অপরাহ্ণ | শনিবার, জানুয়ারি ১১, ২০২০ ঢাকা
dudok

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্কঃ দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) কমিশনার ড. মোজাম্মেল হক খান বলেছেন, এখনকার ছেলে-মেয়েদের বিসিএস ক্যাডার অপশন পছন্দ পরিবর্তন হয়েছে। কোনও কোনও বিশেষ ক্যাডারের প্রতি তাদের আগ্রহ অনেক বেশি। আমি কোনও নাম বলতে চাচ্ছি না। তবে সেগুলো ভালো উদ্দেশ্যে তারা পছন্দ করে না।

শনিবার ঢাকা মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে দুদক ও কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ট ট্রান্স ন্যাশনাল ইউনিট (সিটিটিসি) এর উদ্যোগে সপ্তাহব্যাপী যৌথ প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম, দুদকের মহাপরিচালক (আইসিটি ও প্রশিক্ষণ) একেএম সোহেল। সভাপতিত্ব করেন ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সিটিটিসি) মো. মনিরুল ইসলাম।

ড. মোজাম্মেল হক খান বলেন, একটা সময় দুদককে নিয়ে মানুষ ব্যঙ্গ করতো। এখন সে জায়গার পরিবর্তন এসেছে। যে ইমেজ সংকটে ভুগছিল দুদক, সেটা কাটিয়ে উঠেছে। এই তো কিছুদিন আগে মানুষ দুদককে নিয়ে ব্যঙ্গ করতো। কিন্তু এখন সময় পরিবর্তন এসেছে। ভবিষ্যতে দেখবেন মায়েরা বাচ্চাকে ঘুম পাড়ানোর সময় দুদকের গল্প শোনাবে। তবে আমরা সেটা চাই না। দুদক মানুষের ভীতির কারণ নয় প্রীতির কারণ হতে চায়।

তিনি বলেন, যদি আপনাদের চোখের সামনে কেউ হঠাৎ আঙুল ফুলে কলাগাছ হয়ে যায় বুঝবেন এটা স্বাভাবিকভাবে হননি। এর পেছনে দুর্নীতি রয়েছে। আমরা সেই দুর্নীতি মুছে ফেলতে চাই। একটা দেশের উন্নয়নের পথে দুর্নীতি ও অবৈধ টাকা অনেক বড় প্রতিবন্ধকতা।

তিনি আরও বলেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। এখানে কেউ কথা বলবে, কেউ কথা বলবে না এমন হয় না। এই আন্দোলনে যদি পুলিশ আমাদের সহযোগিতা করে তাহলে আমাদের শক্তি আরও বৃদ্ধি হয়।

দুদক কমিশনার বলেন, দুর্নীতির বিষয় পাঠ্যপুস্তকে থাকা উচিত। আমরা স্কুল কলেজের যাচ্ছি। অ্যাসেম্বলিতে দুর্নীতিবিরোধী শপথ পড়ানো হচ্ছে। এই প্রশিক্ষণের ফলে দুদকের অফিসারদের কর্মক্ষেত্রে অনেক পরিবর্তন আসবে বলে আমি প্রত্যাশা করি।