• আজ ৮ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

স্বামী ব্রাশ-গোসল না করায় ডিভোর্স চাইলেন স্ত্রী

৬:১৩ অপরাহ্ণ | রবিবার, জানুয়ারি ১২, ২০২০ আন্তর্জাতিক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- স্বামী চূড়ান্ত অপরিচ্ছন্ন। গোসল করেন না, ব্রাশও করেন না। বারবার বলা সত্ত্বেও পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকার কোনো চেষ্টাও করেন না। স্বামীর এই নোংরা স্বভাবের জন্য এবার বিবাহ বিচ্ছেদ চেয়েছেন স্ত্রী।

তার দাবি, বারবার বলা সত্ত্বেও স্বামীর স্বভাব শুধরোয়নি। আগামী দিনে তাই তার পক্ষে ওই ব্যক্তির সাথে থাকা সম্ভব নয়। বিহারের বৈশালীর এই ঘটনায় রীতিমতো অবাক নেটিজেনরা।

ওই মহিলার নাম সোনি দেবী। বয়স বছর কুড়ি। ২০১৭ সালে মনিষকে বিয়ে করেন সোনি। বিহারের বৈশালী জেলার নয়াগ্রামে থাকেন স্বামীর সাথে। থাকেনই বটে, তাদের সম্পর্কে আর হৃদ্যতা নেই। হয়তো ভাবছেন, মনের মিল হচ্ছে না, বা অন্য কোনো সমস্যা! কিন্তু, এর কোনোটাই নয়।

সোনি ও তার স্বামী মণীশ রামের সম্পর্কের অবনতি হওয়ার একটাই কারণ, সেটা অপরিচ্ছন্নতা। মণীশ স্বভাবসিদ্ধ অপরিচ্ছন্ন। শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা কোনোকালেই স্নান করতে পছন্দ করেন না। সকালে উঠে দাঁত মাজতেও বিরক্তি তার। দীর্ঘদিন এটা চলতে থাকাই, সোনির পক্ষে আর তার সাথে থাকা সম্ভব হচ্ছিল না।

এদিকে সোনির কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে ওই ব্যক্তিকে নিজেকে শোধরানোর জন্য দুই মাসের সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে স্টেট ওমেন’স কমিশনে (এসডাব্লিউসি)। এ সময়ের মধ্যে নিজেকে সংশোধন না করতে পারলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

সোনি বলেনম “আমার স্বামী ১০ দিনে একবারও দাড়ি-গোঁফ কামান না এবং গোসল করেন না। এছাড়া তিনি দাঁতও মাজেন না। এমনকি তার মধ্যে ভদ্রতা ও আদব-কায়দার বালাইও নেই।”

তিনি আরও জানান, তার স্বামী তার জীবন ধ্বংস করে দিয়েছেন। এমন জীবন তিনি চান না। তাই স্বামীর থেকে আলাদা হতে চান তিনি।

এদিকে সোনির স্বামী মনিষ জানিয়েছেন, তিনি বিবাহ বিচ্ছেদ চান না এবং স্ত্রীর সঙ্গে বসবাস করতে চান। স্ত্রীর মন জয় করতে বেঁধে দেওয়া সময়ের মধ্যে নিজেকে বদলে ফেলবেন বলেও জানান তিনি।