সংবাদ শিরোনাম
করোনায় মৃতের সংখ্যা ৯৫ হাজার ছাড়াল, আক্রান্ত ১৬ লাখ | যুক্তরাজ্যে পিপিই’র জন্য সতর্ক করে বাংলাদেশি ডাক্তার নিজেই মারা গেলেন | করোনার মধ্যেও বায়ুদূষণে শীর্ষে ঢাকা | সীমান্তে দেড় শতাধিক রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় | বরিস জনসনের অবস্থার উন্নতি, আইসিইউ থেকে ওয়ার্ডে স্থানান্তর | সিঙ্গাপুরে নতুন করে আরো ১১৯ জন বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্ত | টাঙ্গাইলের সেই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আইজিপিকে নোটিশ | দরিদ্রদের থেকে কেড়ে নেয়া সেই ত্রাণসামগ্রী উদ্ধার, আটক দুই | ধর্ষণের শিকার রক্তাক্ত শিশুকে নিয়ে থানায় মায়ের আহাজারি | কোন জেলায় কতজন করোনা রোগী শনাক্ত |
  • আজ ২৭শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সিরিয়ায় রাশিয়ার বিমান হামলায় নিহত ৪০

৯:৫০ অপরাহ্ণ | বুধবার, জানুয়ারি ২২, ২০২০ আন্তর্জাতিক
russ

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সিরিয়ার উত্তরপশ্চিমাঞ্চলে রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন বিমান হামলায় অন্তত ৪০ জন নিহত হয়েছে বলে স্থানীয় বাসিন্দারা ও উদ্ধারকর্মীরা জানিয়েছে।

মঙ্গলবারের এ হামলায় সরকারি বাহিনী নিয়ন্ত্রিত আলেপ্পোর পশ্চিমে কফার তাল গ্রামে ছয়টি শিশুসহ আট জনের এক পরিবারের সবাই নিহত হয়েছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছে তারা। এর পাশাপাশি ইদলিব প্রদেশের দক্ষিণপূর্বে মারদাবেশে আরও নয় বেসামরিক নিহত হয়েছে।

সরকারবিরোধীদের নিয়ন্ত্রিত এলাকাটি থেকে বিদ্রোহীদের হটিয়ে দিতে সিরিয়ার সেনাবাহিনী বড় ধরনের একটি অভিযান শুরু করেছে।
এই অভিযানে ইরানের মিলিশিয়া বাহিনীগুলোও তাদের সঙ্গে আছে। এর সঙ্গে রাশিয়ার নেতৃত্বাধীন বিমান হামলা যোগ হওয়ায় ওই এলাকা থেকে হাজার হাজার লোক তুরস্কের সীমান্তের দিকে পালিয়ে যাচ্ছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন।

ডিসেম্বরে ইদলিবে আশ্রয় নেয়া বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে সিরিয়ার সরকারি বাহিনী। এই অভিযানে রাশিয়ার সামরিক বাহিনী ও ইরানের মিলিশিয়া বাহিনীগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

বিমান হামলার পাশাপাশি রাশিয়া স্থলেও বিশেষ বাহিনী মোতায়েন করেছে বলে জানা গেছে। সম্মিলিত অভিযানে এসব বাহিনী বিদ্রোহী অধিকৃত এলাকার অনেক ভিতরে ঢুকে পড়েছে আর এতে ওই এলাকার অনেক ছোট ছোট শহর ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে, হাসপাতাল ও স্কুলও রক্ষা পায়নি বলে জানিয়েছে উদ্ধারকর্মী ও ত্রাণ সংস্থাগুলো।

অপরদিকে বেসামরিকদের ওপর নির্বিচার বিমান হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছে মস্কো ও দামেস্ক। তারা জঙ্গিদের বিরুদ্ধে লড়াই করছে দাবি করে জঙ্গিরা আলেপ্পো শহরের বেসামরিকদের ওপর হামলা জোরদার করেছে বলে পাল্টা অভিযোগ করেছে।

২০১৫ সালে রাশিয়া সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের পক্ষ হয়ে দেশটির গৃহযুদ্ধে হস্তক্ষেপ করার পর পরিস্থিতি পুরোপুরি উল্টে যায়। সিরিয়ায় একের পর এক এলাকা আসাদ অনুগত সরকারি বাহিনী পুনরুদ্ধার করতে শুরু করে। ফলে দেশটির বিদ্রোহী অধিকৃত বহু এলাকার লোকজন পালিয়ে ইদলিবে চলে আসেন।

বর্তমানে সিরিয়ার শুধু ইদলিবই কট্টরপন্থি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এলাকাটি পুনরুদ্ধার করতে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে সিরিয়ার সরকারি বাহিনী ও তাদের মিত্র রাশিয়ার সামরিক বাহিনী। ইদলিব অঞ্চলের অন্তত তিন লাখ ৫০ হাজার বেসামরিক বাসিন্দা বাস্তুচ্যুত হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে ও সেখানে মানবিক সঙ্কট আরও ঘনিভূত হয়েছে বলে চলতি সপ্তাহে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

Loading...