দুর্নীতি করলে কী হয়, তার প্রমাণ বিএনপি: আ.লীগকে রাঙ্গা

সাইফুল ইসলাম মুকুল, রংপুর প্রতিনিধি- ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের উদ্দেশে জাতীয় সংসদের বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ ও জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা বলেছেন, বন্ধুত্ব রাখতে চাইলে রাখেন। বৈরিতা চাইলে তাও করতে পারেন। শত্রুতা চাইলেও করতে পারেন। আমরা এখন কিছু বলব না। তবে আমরা বন্ধুত্ব ধরে রাখতে চাই। কারণ এলায়েন্স করে নির্বাচন করেছি। সেটা রক্ষা করতে চাই। যত পারেন দুর্নীতি করেন। দুর্নীতি করলে কী হয়, তার প্রমাণ বিএনপি।

আজ শনিবার বিকেলে রংপুরে শহীদ মোসলেম উদ্দিন ছাত্রাবাস মাঠে মহানগর জাতীয় যুব সংহতির সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগকে ইঙ্গিত করে রাঙ্গা বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে রংপুরের আসনগুলো না দিলে মহাজোটের সাথে থাকবো না। রংপুর নিয়ে কোন কেনা বেচা করতে দেয়া হবে না।

জাপা মহাসচিব বলেন, কারো সঙ্গে এলায়েন্স করতে আমরা বাধ্য নই। সময় বলে দেবে আমরা কার সঙ্গে এলায়েন্স করব। কোন দল আমাদেরকে ভালোবাসে আর কত আসন দেয় তার উপর নির্ভর করে আমরা এলায়েন্স করব।

এ সময় গাইবান্ধা-৩ আসনটি উপ-নির্বাচনের মাধ্যমে জাতীয় পার্টিকে ফিরিয়ে দিতে মহাজোটের প্রধান আওয়ামী লীগের প্রতি আহ্বান জানান মসিউর রহমান রাঙ্গা।

তিনি বলেন, গাইবান্ধার ওই আসনটি আমাদের। এখান থেকে ফজলে রাব্বী ৬ বার এমপি ছিলেন। এরপর ডা. ইউনুস ২ বার ছিলেন। ওনার বিরুদ্ধে আমার কোনো অভিযোগ নাই। কিন্তু এখন উপ-নির্বাচনে কাকে দেবেন? আমরা চাই আমাদের ৬ বারের আসনটি ফেরত দেয়া হোক।

সম্মেলনে মহানগর যুব সংহতির আহ্বায়ক শাহিন হোসেন জাকিরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- মহানগর জাপার সভাপতি ও সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসির, জেলা জাপার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন মহানগর যুব সংহতির সদস্য সচিব আলাল উদ্দিন কাদেরী শান্তি।

সম্মেলন শেষে কাউন্সিলরদের সর্বসম্মতিক্রমে রংপুর মহানগর জাতীয় যুব সংহতির সভাপতি হিসেবে শাহিন হোসেন জাকির ও সাধারণ সম্পাদক আলাল উদ্দিন কাদেরী শান্তির নাম ঘোষণা করেন যুব সংহতির কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আলমগীর শিকদার লোটন ও সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আহসান শাহাজাদা।

Sharing is.

Share on facebook
Share with others
Share on google
Share On Google+
Share on twitter
Share On Twitter