সংবাদ শিরোনাম

ঘরে বসেই তৈরি করুন মজাদার চিকেন রোল | চাঁদপুরে লঞ্চে অনৈতিক কার্যক্রম রোধে নিয়মিত টহলে থাকবে নৌ-পুলিশ | বিমানের টিকিটের জন্য জমানো টাকায় তরুণকে ইজিবাইক কিনে দিলেন সুমন | মৌলবাদী গোষ্ঠী ধর্মীয় সংগঠন করে রাজনৈতিক খায়েশ মেটাচ্ছে: শিক্ষা উপমন্ত্রী | ‘আওয়ামী লীগ-বিএনপি লড়াই নাই, দেশের মানুষ ভাই ভাই'- বাবুনগরী | নাগরিকদের বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন দেবে মালয়েশিয়া | ছেলের নামে টুর্নামেন্টের আয়োজন করে খেলোয়াড়দের পেটালেন ইউএনও! | ভাস্কর্য আমার বাবার হলেও টেনেহিঁচড়ে ফেলে দেবো: বাবুনগরী | মাহফিলে বক্তব্য না দিয়েই ঢাকায় ফিরে গেলেন মামুনুল হক | ঝিকরগাছায় ধানের বাম্পার ফলন, কৃষকের মুখে খুশির ঝিলিক |

  • আজ ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

বাজারে আর মিলবে না গ্রামীণফোনের সিম!

১:০০ অপরাহ্ন | মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ৪, ২০২০ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
grameen

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্কঃ দুয়েক সপ্তাহ পর থেকে বাজারে গ্রামীণফোনের সিম পাওয়া যাবে না। খুচরা বাজারে যেসব সিম রয়েছে, তা এক থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। ফলে বাজারে গ্রামীণফোনের সিম (০১৭... ও ০১৩... নম্বর সিরিজ) পাওয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন অপারেটরটির প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমান।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) গ্রামীণফোনের প্রধান কার্যালয় জিপি হাউজে মতবিনিময়কালে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

ইয়াসির আজমান বলেন, গ্রামীণফোনের যেসব সিম বাজারে রয়েছে তা এক থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। ফলে বাজারে গ্রামীণফোনের সিম (০১৭ ও ০১৩ নম্বর সিরিজ) পাওয়া যাবে না। আমাদের হাতে কোনো সিম নেই। খুচরা বিক্রেতাদের হাতে কিছু সিম রয়েছে। সেগুলো শেষ হয়ে গেলে বাজারে আর সিম পাওয়া যাবে না।

তিনি আরও বলেন, গ্রাহকদের চাহিদা মেটাতে প্রতিদিন গ্রামীণফোন ৫০ হাজার সিম বাজারে ছাড়ে। গ্রামীণফোন তাদের পুরনো ০১৭ কোডের দশ কোটি নম্বর বিক্রি করার পর ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ০১৩ নম্বর কোড থেকে আরও দুই কোটি সিম বিক্রির অনুমোদন পায়। এর সবই বিক্রি হয়ে গেছে।

তবে নিয়মিত সিম বিক্রি হলেও অনেক সিমই আবার বন্ধ হয়ে যায়। তবে সিম রিসাইকেলের (পুরনো বন্ধ সিম নির্দিষ্ট সময় পর বিক্রির জন্য রেডি করা) জন্য বিটিআরসির অনুমতি পাওয়া যাচ্ছে না।

সিম রিসাইকেলের বিষয়ে তিনি জানান, বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের বেঁধে দেয়া নিয়মানুসারে কোনো সিম টানা ৯০ দিন একবারের জন্যও ব্যবহার না হলে সেটি অকার্যকর গ্রাহক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। আর টানা ১৫ মাস যদি সংযোগটি বন্ধ থাকে তাহলে সেই সিমটি নতুন করে বিক্রি সুযোগ পায় অপারেটররা।